নয়া জুটি জয়া এহসান-প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জি, সামনে এল ‘রবিবার’-এর ফার্স্ট লুক

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | September 11, 2019 | 3:48 pm

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অতনু ঘোষের সঙ্গে এর আগে ‘ময়ূরাক্ষী’তে জুটি বেঁধেছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। পুরষ্কৃত হয় সেই ছবি। জয়ারও অতনুর সঙ্গে এটি দ্বিতীয় কাজ। ‘বিনি সুতো’য় তিনি কাজ করেছেন অতনু ঘোষের পরিচালনায়। এবার আরও একবার অতনু ঘোষের সঙ্গে জুটি বাঁধছেন দুজনে। রোম্যান্টিসিজম এবং থ্রিলার মিলেমিশে থাকবে এই ছবিতে।

সামনে এসেছে ‘রবিবার’-এর ফার্স্ট লুক। চমক রয়েছে সেখানে। বলা ভালো, কোনও বিশেষ বার্তা বহন করছে ছবির ফার্স্ট লুক। জয়া এহসানের সঙ্গে এই প্রথম স্ক্রিন শেয়ার করছেন বাংলার সুপারস্টার। শুধু তাই নয়, এই প্রথম কোনও বাংলাদেশি নায়িকার সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করতে চলেছেন ইন্ডাস্ট্রির সকলের প্রিয় বুম্বা দা। ছবির সঙ্গীত পরিচালক দেবজ্যোতি মিশ্র। ক্যামেরায় আপ্পু প্রভাকর। শিল্প নির্দেশনায় গৌতম বসু। স্টাইলিং-এ রয়েছেন অনিরুদ্ধ চাকলাদার। পোশাক পরিকল্পনায় সাবর্ণী দাস। সাউন্ড ডিজাইনিং-এ সৌগত বন্দ্যোপাধ্যায়।

ছবি প্রসঙ্গে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় জানান, ‘অসীমাভ’র মতো কোনও চরিত্র এর আগে করিনি। আমার মনে হয় ভারতবর্ষের সিনেমার ইতিহাসে এরকম চরিত্র এর আগে কখনও দেখেনি কেউ। ম্যাজিক্যাল দিক আছে চরিত্রটায়। হারিয়ে যাওয়া মানুষের সঙ্গে দেখা হয় অসীমাভ’র। তারপর কী হল সেটা নিয়েই এই ছবি।” তিনি আরও জানান, “জীবনের অধিকাংশ রবিবারই কাজ করে কাটিয়েছি। আর তাই বোধহয় ছবির নামটাও মিলে গেল। একটা রবিবারের গল্প উঠে আসবে এই ছবিতে।”

জয়া এহসান জানান, “এই নিয়ে দুটি ছবিতে কাজ করে ফেললাম অতনু ঘোষের সঙ্গে। এর আগে ‘বিনি সুতো’য় কাজ করেছি ওঁর সঙ্গে। ‘রবিবার’ ছবিটিতে মানব-মানবীর স্বাভাবিক সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া যাবে না। তবে, যা আছে তা সংবেদনশীল দর্শক অনুভব করতে পারবেন। বুম্বাদার সঙ্গে কাজ করে আমি দারুণ খুশি। এ এক বড় পাওয়া আমার।” পরিচালক অতনু ঘোষ জানান, “বুম্বাদা’র সঙ্গে কাজ করে বেরিয়ে আসা যায় না। আরও একবার নতুন কাজ করতে ইচ্ছা করে। একইভাবে জয়া চরিত্রর সঙ্গে নিজের মনটাকে নানাভাবে যুক্ত করেন। ফলে, ওঁর সঙ্গে কাজ করার মজাটাই আলাদা।” ইকো এন্টারটেনমেন্টের প্রযোজনায় ছবির শুটিং শুরু হতে চলেছে আগামিকাল থেকে।

sweta

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট