সিবিআইয়ের জয়েন্ট ডিরেক্টর পঙ্কজ শ্রীবাস্তব কলকাতায়, এখনও গরহাজির রাজীব কুমার

0
11

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: বিকাল ৫ টা নাগাদ বেপাত্তা রইলেন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। সিবিআই দফতরে হাজিরার নির্দেশ থাকলেও এখনও অনুপস্থিত তিনি। অন্যদিকে, সোমবার দুপুর সওয়া তিনটে নাগাদ নিজাম প্যালেস থেকে সিজিও কমপ্লেক্সে যান কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা এজেন্সির জয়েন্ট ডিরেক্টর পঙ্কজ শ্রীবাস্তব। সূত্রের খবর, সিজিও কমপ্লেক্সে সারদা কেলেঙ্কারির তদন্তকারী অফিসার তথাগত বর্ধন-সহ গোয়েন্দাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তার পরেই দুজনে একই গাড়িতে বেরোলেন সল্টলেক সিজিও থেকে।

সূত্রের খবর, সিবিআই আধিকারিকদের গতিবিধির উপর নজর রাখতে বাড়ানো হয়েছে পুলিশি পাহারা৷ ক্যামেরা লাগানো তিনটি পুলিশের গাড়ি রাখা রয়েছে সিবিআই অফিসের বাইরে৷ দুপুরে সিবিআই-এর জয়েন্ট ডিরেক্টর পঙ্কজ শ্রীবাস্তব সিজিও কমপ্লেক্সে আসতেই বেড়ে যায় বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের তৎপরতা৷

সেইসাথে জানা যাচ্ছে, আগামীকাল দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বৈঠক করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও৷ রাজ্যের বিভিন্ন দাবি নিয়ে কথা বলতেই তাঁর এই দিল্লি সফর বলে নবান্ন সূত্রে খবর। কিন্তু কী নিয়ে বৈঠক হবে? সে সম্বন্ধে নবান্নের তরফে তা কিছু জানানো হয়নি।

তবে, কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বেপাত্তা ইস্যুতে কড়া পদক্ষেপ নিতে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের কাছে আধাসামরিক বাহিনী চেয়েছে সিবিআই। ফল স্বরূপ কলকাতায় এসে গেছে এক কোম্পানি সিআরপিএফ।  রাজীব কুমার কোথায় আছেন তা জানতে চেয়ে সকালেই ডিজি, মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিবকে চিঠি দিয়েছে সিবিআই। কেননা, হেভিওয়েট একজন আইপিএস ছুটিতে থাকলে তিনি কোথায় আছেন তাঁর ঠিকানা ও অন্য কোনও ফোন নম্বর জমা রাখতে হয় সংশ্লিষ্ট দপ্তরে। এরপরই নবান্নয় মিটিং হয়। তবে রাজীবের অবস্থান নিয়ে নবান্নর তরফে স্বরাষ্ট্রসচিব বা মুখ্যসচিব কেউই মুখ খোলেননি সাংবাদিকদের কাছে।

শুক্রবার হাইকোর্ট রক্ষা কবচ তুলে নেওয়ার পর থেকেই তাকে খুঁজছেন গোয়েন্দারা। রবিবার নবান্নে গিয়ে চিঠি দেওয়ার পর ফের সোমবার রাজীব কুমার নিয়ে সিবিআইয়ের দুই আধিকারিক নবান্নে গিয়ে মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিবকে চিঠি দেন। এদিকে ফের আড়াল থেকেই শনিবারই বারাসত আদালতে আগাম জামিনের আবেদন জানান রাজীবের আইনজীবী। যদিও হাইকোর্টের রায়ের পর এই মামলার কোনও গুরুত্ব নেই। তবুও বারাসত আদালতে মঙ্গলবার এই রায়ে শুনানির কথা। এই কাগজ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার চেষ্টা করছেন রাজীবের আইনজীবী। মক্কেলের নির্দেশ মতো আরও কিছুদিন সময় নিয়ে রাখতে চাইছেন। সেটা যাতে কার্যকর না হয়, সেজন্য আজ সুপ্রিম কোর্টে আগাম ক্যাভিয়েট দাখিল করে সিবিআই।

ক্যাভিয়েট হল একটি আগাম নোটিশ, যেটি যে কোনও হাইকোর্টে কোন মামলার রায় হয়ে থাকলে তা তদন্তকারী সংস্থা আগে থেকে উচ্চ আদালতকে জানিয়ে রাখতে পারে। যাতে এই সংক্রান্ত একই বিষয়ে ফের কেউ মামলা করলে ওই তদন্ত সংস্থাকে না জানিয়ে আদালত কোনও পদক্ষেপ না নেয়। হাইকোর্ট রাজীব কুমারের রক্ষাকবচ উঠিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে এবং একই সঙ্গে বলা হয়েছে সিবিআইয়ের কোনো মামলায় হাইকোর্ট হস্তক্ষেপ করবে না। সেই রায় সুপ্রিম কোর্টে আগে থেকে সিবিআই জানিয়ে রাখার ফলে এখন রাজীব কুমার যদি ফের সুপ্রিম কোর্টে দ্বারস্থ হন, তাহলে সিবিআইয়ের ক্যাভিয়েট দাখিল করে রাখার ফলে তিনি আগাম জামিনের সুযোগ পাবেন না।

@এস. এ. হামিদ

(Visited 1 times, 1 visits today)