বিশ্ব দরবারে বাংলা ভাষাকে সন্মান জানালেন নমো

মনোজ রায়: ৫৬ ইঞ্চির ছাতি থাকলে বোধ হয় সবই সম্ভভ হয়। রাজ্যজুড়ে বাংলা ভাষা নিয়ে বিরোধীরা যে কেন্দ্র বিরোধী ঝড় তুলছে তা কার্যত নিমেষেই শেষ করে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মার্কিন মাটিতে ‘হাউডি মোদি’ অনুষ্ঠানে বাংলা বলে সকলের মন জিতলেন নরেন্দ্র মোদি। ভারত – মার্কিন বন্ধুত্বের উজ্জাপনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে গতকাল  ভারতীয় সময় অনুযায়ী রাত ১১.৩০ মিনিট নাগাদ বক্তব্য শুরু করেন তিনি। তখনই অনুষ্ঠানের শীর্ষক বিশ্লেষণ করতে গিয়ে বাংলায় বলেন, ‘সব খুব ভাল’। সেই সঙ্গে কুর্ণিশ করলেন ভাষাগত বিবিধতাকেও।

উল্লেখ্য, কেন্দ্রের মন্তব্যের বিকৃতি ঘটিয়ে বাম-সহ সকল বিরোধীরা প্রচার চালাচ্ছে যে মোদি সরকার বাংলা ভাষার সংস্কৃতিকে মুছে দিতে চাইছে। এমনকি সম্প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ব্যক্তব্যকে বিকৃত করে হাতিয়ার করতে চাইছে বিরোধীরা। বিরোধীদের দাবি, বাংলা ভাষাকে মুছে দিয়ে কেন্দ্র জোর করে হিন্দি চাপাতে চাইছে। আর এই ভাবনা মানুষের মধ্যে প্রচার করে সাধারণ মানুষের আবেগ কাড়তে চাইছে বর্তমানের সাইনবোর্ডে পরিণত হওয়া বামেরা।

কিন্তু গতকাল সব জল্পনার অন্ত ঘটিয়ে বিদেশের মাটিতে বাংলায় কথা বললেন বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন তিনি বলেন, “আপনারা যদি জিজ্ঞাসা করেন হাউডি মোদি? আমি বলব ভারতে ‘সব ভাল আছে।’ এর পরই এই উক্তিটিই একাধিক ভারতীয় ভাষায় বলেন তিনি। বাংলায় বলেন, ‘সব খুব ভাল।”

আরও পড়ুন: [আপনি সাক্ষাৎ ভগবানের রূপ, বিদেশের মাটিতে মোদিকে ধন্যবাদ আবেগতাড়িত কাশ্মীরি পণ্ডিতদের]

এরপরই ভারতের গৌরবময় বিবিধতার কথা মনে করিয়ে দিয়ে মোদি বলেন, “আমাদের দেশের ভাষাবৈচিত্র আমাদের গর্ব। আর বিবিধতার মধ্যে ঐক্যই ভারতীয় গণতন্ত্রের সব থেকে বড় শক্তি। এই বিবিধতাই বিশ্বে ভারতকে গোটা বিশ্বে অনন্য করে তোলে। প্রত্যেক ভাষাতে কোটি কোটি মানুষ কথা বলেন। আর আমরা প্রতিটি ভাষাকে সম্মান করি।”

আরও পড়ুন: [মার্কিন মাটিতে পা রেখেই সকলের মন জয় করলেন নমো]

কার্যত, মোদির এই কথা বলার শৈলীতে অভিভূত সকলেই। ১২৬ বছর ১১ দিন পর সেপ্টেম্বরেই আরও এক ‘নরেন্দ্র’ ফের ভারতের নাম তুলে ধরলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। এই নরেন্দ্র অবশ্য ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র দামোদরদাস মোদি। হিউস্টন শহরে ‘হাউডি মোদি’ অনুষ্ঠানে তাঁর বক্তব্যকে যেভাবে গুরুত্ব দিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলি, তাতে ফের একবার ভারতের দিকে ফিরে তাকাতে বাধ্য হচ্ছে বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশগুলি। এদিনের নয়া ‘নরেন্দ্র’র ভাষণ শুনেও অভিভূত হয়েছেন অনেকেই।

@মনোজ

(Visited 5 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here