শহরকে জঞ্জালমুক্ত রাখতে কড়া নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

0
8

আগরতলা শহরকে জঞ্জালমুক্ত রাখার কড়া নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

আগরতলা: এখন থেকে আগরতলা শহরের জঞ্জাল পরিষ্কার করার কাজ প্রতিদিন ভোর চারটে থেকে শুরু করে সকাল ১০টার মধ্যে শেষ করতে হবে। সর্বাবস্থায় অফিস টাইমের আগে জঞ্জাল পরিষ্কার করার কাজ শেষ করতে হবে। এখনও দেখা যায়, বেলা দুটো, এমন-কি সারাদিনই জঞ্জালবাহী ডাম্পার আগরতলা শহরে ঘোরাফেরা করছে, তা আর চলবে না, বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব। আজ তিনি তাঁরনির্বাচনী এলাকা বনমালীপুরের অন্তর্গত মহারাজগঞ্জ বাজার পরিদর্শন করে এইনির্দেশ দিয়েছেন।

রাজধানী আগরতলার অন্যতম ব্যস্ত ও বড় বাজার মহারাজগঞ্জে। এর বিভিন্ন রাস্তা ও রাস্তার পাশের নালা জঞ্জালে পরিপূর্ণ। এলাকাবাসীর অভিযোগ, আগরতলা পুরনিগমের সাফাই কর্মীরা প্রতিদিন এলাকা পরিষ্কার করেন না। রাস্তার পাশে ছয় ফুট গভীর নালাগুলি আবর্জনায় ভরে আছে। তাই সামান্য বৃষ্টি হলে নোংরা জল রাস্তার উপর দিয়ে যায়, এমন-কি নাগরিকদের বাড়িঘরে ঢুকে এ-সব নর্দামা জল। এই অভিযোগের ভিত্তিতে এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শনে যান মুখ্যমন্ত্রী তথা স্থানীয় বিধায়ক। তিনি এই অবস্থা দেখে ক্ষোভ ব্যক্ত করেন। পাশাপাশি তিনি স্থানীয় মানুষের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের নানা সমস্যাবলির বিষয়ে জেনে নেন।

পরিদর্শন শেষে তাঁর সঙ্গী সরকারি অফিসারদের মুখ্যমন্ত্রীনির্দেশ দেন, এক মাসের মধ্যে এই অবস্থার পরিবর্তন করতে হবে। এক মাস পর তিনি ফের এলাকা পরিদর্শনে যাবেন। তখন যদি দেখেন যে অবস্থার উন্নতি হয়নি, তবে তিনি কঠোর পদক্ষেপ নেবেন এই সকল কাজেনিয়োজিত সরকারি কর্মচারীদের বিরুদ্ধে, সাফ জানান মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, অনেক মানুষ সরকারি জায়গা-সহ ড্রেন দখল করে রেখেছেন। এগুলিকেও দখলমুক্ত করা হবে।

মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব জানান, স্মার্টসিটি মিশনে আগরতলাকে স্বচ্ছ করা হবে। কিন্তু তার জন্য সময় লাগবে। তাই বলে এখন শহরকে দূষিত করে রাখা হবে, তা চলবে না। পুরনিগমেরনির্বাচিত প্রতিনিধি থেকে শুরু করে দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার, সবাইকে সঠিকভাবে কাজ করতে হবে।নিজের কাজ সঠিকভাবে করতে হবে। যদি কাউকে কাজে গাফিলতি করতে দেখা যায় তবে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবেন তিনি। আজ সোমবার তিনি শহরের মহারাজগঞ্জ বাজারের প্রায় দুই কিমি রাস্তা পায়ে হেঁটে ঘুরে দেখেছেন।

(Visited 1 times, 1 visits today)