পাহাড়-জঙ্গলকে নিয়ে এবার উত্তরে হতে চলেছে পর্যটন উৎসব

অভ্র বরণ চট্টোপাধ্যায়, শিলিগুড়ি: উত্তরের পর্যটনকে তুলে ধরতে অভিনব উদ্যোগ পর্যটন দফতরের। এবছর পর্যটন উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।যা উত্তরবঙ্গে প্রথমবার হতে চলেছে। একমাসের বেশি সময় পাহাড়ের কোলে জঙ্গলের মাঝে চলবে এই উৎসব। উত্তরের জেলাজুড়ে বসবে এই আসর। উৎসবের প্রস্তুতি নিয়ে সোমবার রাজ্যের পর্যটন দপ্তরের মুখ্যসচিব ও জেলাশাসকদের নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক সারলেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব।

রাজ্যে দ্বিতীয়বার হতে চলেছে পর্যটন উৎসব। গত বছর দক্ষিণবঙ্গের পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে আয়োজিত হয়েছিল উৎসব। এবার উত্তরবঙ্গের পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে তুলে ধরতে মরিয়া পর্যটন দফতর। ঠিক হয়েছে ১৫ নভেম্বর থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এই উৎসব। তবে এই উৎসবের আসর বসানো হবে সপ্তাহের ছুটির দিন গুলোতেই। ১৩ আগষ্ট থেকে উৎসবে যোগ দেওয়ার জন্য অনলাইনে বুকিং করতে পারবেন পর্যটকরা।এবিষয়ে সোমবার নিজের দফতরে ছয় জেলার জেলাশাসক সহ দফতরের মুখ্য সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন মন্ত্রী। বৈঠকের পর মন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, “এবছর পর্যটন উৎসবের জন্য উত্তবঙ্গের পাহাড় থেকে বনাঞ্চল বেঁছে নেওয়া হয়েছে। উত্তরের ছয়টি পর্যটন কেন্দ্র জলপাইগুড়ির মেটেলি, গাজোলডোবা, আলিপুরদুয়ারের রাজা ভাতখাওয়া, কালিম্পং-এর পেডং, শিটং ও দক্ষিণ দিনাজপুরের কালিদিঘিতে উৎসব করা হবে। মেটিলি দিয়ে শুরু হবে এই উৎসব। প্রতিটি কেন্দ্রে ১২৫ জন করে পর্যটক অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন। সপ্তাহের শুক্রবার থেকে রবিবার দুপুর পর্যন্ত এই উৎসব হবে। মাথা পিছু প্রতিদিন হিসেবে মাত্র ১২৫০ টাকা করে ধার্য্য করা হয়েছে। এরমধ্যে তিন দিনের সকাল থেকে রাত পর্যন্ত থাকা, খাওয়া থেকে শুরু করে সাইড ট্যুর, হাতি সাফারি এমনকি সাংস্কৃতিক অনুষ্টানের মজা নিতে পারবেন পর্যটকরা”।

তিনি আরও বলেন, “উৎসবের জন্য পর্যটকদের সুবিধার্থে চারটি হেল্প ডেক্স করা হবে। বাগডোগরা বিমান বন্দর, এনজেপি স্টেশন, আলিপুরদুয়ার ও মালদা স্টেশনে করা হবে ডেক্স। সেখান থেকে পর্যটকদের সরাসরি উৎসব কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হবে। সরকারি লজের পাশাপাশি তাদের হোম স্টে-তে রাখা হবে। তাদের মধ্য থেকে ২০-২৫ জনকে উৎসবস্থলে তাবু খাটিইয়ে রাখা হবে। এছাড়া গ্রামের মানুষদের এই উৎসব দেখার ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে পাহাড়-জঙ্গল প্রেমী চলচ্চিত্র তারকাদেরও নিয়ে আসার চেষ্টা করা হচ্ছে। সব মিলিয়ে একটু অন্য স্বাদে করা হবে এবারের পর্যটন উৎসব”।

 

 

(Visited 1 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here