প্লাবিত তিনটি গ্রাম, ফুঁসছে ধলেশ্বরী-কাটাখাল

ফুঁসছে ধলেশ্বরী-কাটাখাল, হাইলাকান্দিতে প্লাবিত তিনটি গ্রাম

হাইলাকান্দি (অসম): ব্ৰহ্মপুত্ৰ উপত্যকার উজান থেকে নিম্নের পর এবার বরাক উপত্যকা বন্যার কবলে পড়েছে। উপত্যকার কাছাড় জেলার বরাক, করিমগঞ্জের তিন প্রধান নদী কুশিয়ারা, লঙ্গাই ও সিংলার পাশাপাশি হাইলাকান্দি জেলায় বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে কাটাখাল ও ধলেশ্বরী। নদী তীরবর্তী ভাঙা বাঁধ গলিয়ে জলে প্লাবিত হয়েছে তিনটি গ্রাম।

গত প্রায় চারদিনের ভারী বৃষ্টির ফলে বেড়েছে ধলেশ্বরী ও কাটাখাল নদীর জলস্তর। বৰ্তমানে বিপদসীমা থেকে প্ৰায় ১ মিটার ওপর দিয়ে এই দুই নদীর জল বইছে। প্ৰতি ঘণ্টায় প্ৰায় ৫ সেন্টিমিটার করে জল বাড়ছে। ইতিমধ্যে ভাঙা বাঁধ গলিয়ে প্লাবিত হয়েছে তিনটি গ্রাম। কাটাখাল নদীর জলে প্লাবিত হয়েছে কালাছড়া গ্রাম, আংকাই লংকাই বাঁধ ভেঙে নিমাইচাঁদপুর, নয়াগ্ৰাম এবং সোনাপুর। জল আরও বাড়লে কিংবা যদি কোথাও বাঁধ ভাঙে তা-হলে আজ রাতেই আরও ১৪টি গ্রাম প্লাবিত হওয়ার সম্ভাবনায় আতঙ্কে রয়েছেন বাসিন্দারা।

প্রসঙ্গত, গত বছর জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহে হাইলকান্দি বন্যার কবলে পড়েছিল। জেলার ৮২,২২৫ জন মানুষ বানভাসি হয়েছিলেন। সরকারিভাবে জেলার পাঁচটি সার্কলে ৫৫টি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছিল সেবার। কিন্তু এর পর ভাঙা বাঁধ মেরমত না করায় ফের এবার বন্যার কবলে পড়ছেন মানুষ, উঠেছে অভিযোগ।

জেলার ধলেশ্বর-ভৈরবী জাতীয় সড়ক-সহ অধিকাংশ রাস্তা হয়ে পড়েছিল জলমগ্ন। যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে বহু এলাকা। জেলার লালা, হাইলাকান্দি, আলগাপুর, কাটলিছড়া, জামিরা ইতাদি এলাকায় হাহাকারের সৃষ্টি হয়েছিল।

(Visited 11 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here