২০ জুন থেকে সচল হবে পুরনো শরাইঘাট সেতু

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | June 12, 2019 | 7:15 am

গুয়াহাটি ও উত্তর গুয়াহাটির মধ্যে সংযোগ রক্ষাকারী পুরনো শরাইঘাট সেতু চলতি মাসের ২০ তারিখ জনগণ তথা যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে। পুরনো শরাইঘাট সেতুর বিভিন্ন স্থানে ফাটল ও গর্ত হয়ে যাওয়ার ফলে মেরামতির জন্য বন্ধ করে দিয়েছিল রেল দফতর। ২০ তারিখের আগে এই সেতুর মেরামতির কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে বলে জানান উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের জনসংযোগ আধিকারিক নৃপেন ভট্টাচার্য।

উল্লেখ্য, ১৯৬২ সালে ব্রহ্মপুত্র নদের ওপর শরাইঘাটের পুরনো সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছিল। প্রতিদিন হাজারো ছোট-বড় গাড়ি এই সেতুর উপর দিয়ে চলাচল করে। সেতু নির্মাণের প্রায় ছয় দশক পর এটি যথেষ্ট নড়বড়েস ও বিভিন্ন জায়গায় ফাটল এবং বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছিল। তাই এর মেরামতির জন্য ৯০ দিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

পুরনো শরাইঘাট সেতুর পাশাপাশি শরাইঘাটের দ্বিতীয় নতুন সেতু তৈরি করা হয়েছে যদিও পুরনো সেতু বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে সেখানে ট্র্যাফিক জ্যাম নিত্যদিনের যন্ত্রণার কারণ হয়ে পড়েছিল। ছোট-বড় যাত্রীবাহী ও পণ্যবাহী গাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স, স্কুলবাসকে প্রচণ্ড হয়রানের শিকার হতে হচ্ছে। প্রায় তিন থেকে পাঁচ ঘণ্টা এবং কখনও কখনও আরও বেশি সময় জ্যামে আটকে থাকতে হচ্ছে গাড়িকে।

মানুষের অসুবিধার কথা ভেবে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল গত ২৯ এপ্রিল সেতু পরিদর্শন করে আগামী ২০ জুনের সময়সীমা বেঁধে এর মধ্যে এর কাজ সম্পূর্ণ করতে বিভাগীয় ইঞ্জিনিয়ারদের কড়া নির্দেশ দিয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পর রেল বিভাগ মেরামতির কাজ আরও বেশি শ্রমিক নিয়োগ করে দ্রুত কাজ শুরু করে।

এ-সম্পর্কে রেলের জনসংযোগ আধিকারিক নৃপেন ভট্টাচার্য বলেন, সেতু মেরামতের জন্য যে সময় দেওয়া হয়েছিল সেই সময়ের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে। বর্তমানে প্রায় সব কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গেছে। যে কিছু সামান্য কাজ বাকি, এই কয়েদিনের মধ্যেই সেই  কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে। ফলে জুনের ২০ তারিখ সেতুটি খুলে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি। তবে তিনি আরও বলেন, সেতুর ওপর কাজ চলার ফলে যান চলাচল বন্ধ করে রাখা হলেও সেতুর নীচের রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলাচল করছে নিয়মিতভাবে। একবার সেতু মেরামতি হয়ে গেলে বহুদিন আর তার সংস্কারে প্রয়োজন হবে না বলে তিনি দাবি করেন।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *