আজকের গুরুত্বপূর্ণ খবর ১পশ্চিমবঙ্গ

নারদ কান্ডে ব্যবহৃত মোবাইলের ফরেনসিক রিপোর্ট আসা নিয়ে প্রশ্ন তুলল হাইকোর্ট 

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দেড় বছর হয়ে গেলেও এখনও কেন নারদ কাণ্ডের ভয়েস টেস্টের ফরেন্সিক রিপোর্ট এলো না তা নিয়ে প্রশ্ন তুলল কলকাতা হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার নারদ কাণ্ডে অপরূপা পোদ্দার ও ইকবাল আহমেদের এফআইআর থেকে নাম খারিজের মামলার শুনানিতে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআইয়ের এই প্রশ্নন তুললেন বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি।

এদিন মামলাকারীদের তরফে আইনজীবী রাজদীপ মজুমদার আদালতে জানান, ‘দেড় বছর হয়ে গেছে, এখনও নারদ মামলায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ দেখাতে পারেনি সিবিআই। এমনকি স্ট্রিং অপারেশনের জন্য ব্যবহৃত মোবাইলের ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্য বিদেশি সংস্থার কাছে যে আবেদন করেছে তাও দেখায়নি। সাধারনত এই রকম কেসে সেখানকার আদালতের যে অনুমতি নিতে হয়, কিন্তু সেই অনুমতি দেখাতে পারেনি সিবিআই।

এবিষয়ে সিবিআইয়ের কাছে বিচারপতি জানতে চান, ‘নারদ মামলায় দেড় বছর হয়ে গেলেও আমেরিকায় মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থার থেকে কোনও রিপোর্ট আসলো না কেন? এর পরিপ্রেক্ষিতে সিবিআই জানায়, ‘ওই মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থার তরফে এখনও কিছু জানায়নি। বিদেশি সংস্থা, তাই রিপোর্ট আসতে দেরি হচ্ছে।’সিবিআই আরও জানায়, ‘গত ডিসেম্বরে আরও ৪ জন সাংসদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের জন্য বিধানসভার অধ্যক্ষের কাছে অনুমতি চেয়েছে সিবিআই। যদিও সেই অনুমতি এখন মেলেনি।

[আরও পড়ুন: অনেক হল মোমবাতি জ্বালান, এবার জ্বালান হোক ধর্ষণকারীকে, প্রতিবাদ উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে]

এ প্রসঙ্গে বিচারপতির মন্তব্য, ‘তদন্তের প্রয়োজনে যা সময় সেটা দিতে হবে। দেখা যাক তদন্তের কি রিপোর্টের ওপর ওরা চাজশিট পেশ করে।’ এদিন ইকবালের আইনজীবী তার মক্কেলকে হেনস্থা করা হচ্ছে বলে আদালতে অভিযোগ করেন। তার দাবি, তার মক্কেল অসুস্থ। তার সত্বেও তাকে বার বার ডেকে পাঠানো হচ্ছে।  এনিয়ে বিচারপতির মন্তব্য, ‘কারও শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটিয়ে তদন্ত হোক সেটা যেমন চাইবো না, কিন্তু তার জন্য তদন্ত বন্ধ করে দিতে পারি না। তদন্ত যেমন চলছে তেমন চলবে।’

অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআইয়ের দায়ের করা এফআইআর খারিজের আবেদন নিয়ে গত মাসে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

এদিন শুভেন্দুর আইনজীবী তার মক্কেলের ওপর অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ চান। কিন্তু আদালত সেই আবেদন খারিজ করে দেন। শীতকালীন অবকাশের পরে শুভেন্দু ইকবাল ও অপরূপা মামলা একসঙ্গে শুনবে বলে জানান বিচারপতি। এবং শুভেন্দুর আইনজীবীকে সিবিআইয়ের কাছে মামলার নথি সার্ভ করার নির্দেশ দেন বিচারপতি।

উল্লেখ্য, নারদ ঘুষ কাণ্ডে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রভাবশালী নেতা-নেত্রীদের ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ্যে আসার পর কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়। তদন্তভার যায় সিবিআই-এর হাতে। সেইমতো ভিডিওয় যে অভিযুক্তদের দেখা গিয়েছিল তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে সিবিআই।

(shreyashree)

(Visited 11 times, 1 visits today)

Tags

Related Articles

Back to top button
Close
Close