দিল্লিতে মন্দির ভাঙচুর, রাষ্ট্রপতিকে খোলা চিঠি

দিল্লিতে মন্দির ভাঙচুর, রাষ্ট্রপতির উদ্দেশ্যে চিঠি পাঠাল ত্রিপুরার বজরং দল ও বিশ্বহিন্দু পরিষদ

আগরতলা: দিল্লিতে মন্দিরে হামলার ঘটনায় রাষ্ট্রপতির উদ্দেশ্যে চিঠি পাঠাল বিশ্বহিন্দু পরিষদ ও বজরং দল। ত্রিপুরার আট জেলাশাসকের কাছে রাষ্ট্রপতির উদ্দেশে লেখা চিঠি তুলে দিয়েছেন সংগঠনের কর্মকর্তারা।

এ-বিষয়ে আগরতলায় বজরং দলের দক্ষিণ-পূর্ব সহসংযোগের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রসেনজিৎ দাস জানান, জেহাদি কার্যকলাপের জন্য দেশজুড়ে অস্থির পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। দিল্লিতে মন্দিরে হামলার ঘটনা তারই অঙ্গ বলে তিনি অভিযোগ করেন৷ তাঁর কথায়, জেহাদিদের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণায় রাষ্ট্রপতির উদ্দেশ্যে চিঠি পাঠানো হচ্ছে। তিনি বলেন, সনাতন ধর্মের উপর আক্রমণ কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যায় না৷ সে-ক্ষেত্রে সরকারের কড়া পদক্ষেপ নেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু, দিল্লির মন্দিরে আক্রমণের ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, সনাতন ধর্মের উপর এভাবে আক্রমণ হলে বজরং মুখ বুঝে সহ্য করবে না। প্রয়োজনে অস্ত্র হাতে তুলে নিতেও দুবার ভাববে না৷ তাঁর বক্তব্য, আজ সারা দেশেই সমস্ত জেলাশাসকের কাছে ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত দোষীদের শাস্তি এবং সনাতন ধর্মের নিরাপত্তার দাবিতে রাষ্ট্রপতির উদ্দেশে চিঠি পাঠানো হয়েছে৷ তিনি বলেন, ত্রিপুরার আট জেলার জেলাশাসকদের মাধ্যমে চিঠি পাঠানো হবে৷ তাঁর আশা, রাষ্ট্রপতি এ-বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন৷ কারণ, মন্দির ধ্বংস, গো-হত্যা এই দেশের জন্য বিপজ্জনক হয়ে দাঁড়িয়েছে৷

এদিকে উত্তর ত্রিপুরা জেলা বিশ্বহিন্দু পরিষদের শাখা সম্পাদক সুরজ ভট্টাচার্য বলেন, দিল্লির চাঁদনিচকে ১৫০ বছরের পুরনো মন্দিরে জোহাদি গোষ্ঠী ভাঙচুর এবং সাধুসন্তদের উপর অত্যাচার চালিয়েছিল। তাঁর কথায়, কিছুদিন আগে পানিসাগর মহকুমার (উত্তর ত্রিপুরা) পদ্মবিলে দুটি বাইক পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল এবং একটি গাড়ি ভেঙে দিয়েছিল দুষ্কৃতকারীরা। একইভাবে রবিবার রাজনৈতিক দলের উপর আক্রমণ করে ২২টি বাইক ও একটি গাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে৷ তাঁর অভিযোগ, জেহাদিরা এ-রাজ্যেও ঢুকে পড়েছে৷ তাদের কঠোর হাতে দমন না করা হলে আগামীদিনে রাজ্য তথা দেশের জন্য ক্ষতিকারক হয়ে দাঁড়াবে৷

(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here