অন্নপ্রাশনে চারাগাছ উপহার দিয়ে নজির গড়লেন সুন্দরবনের যুবক

সদ্য উদযাপিত হয়েছে পরিবেশ দিবস। আর সেই পরিবেশ দিবসের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার অন্নপ্রাশনে উপহার হিসেবে চারাগাছ দিয়ে নজির সৃষ্টি করলেন দক্ষিণ ২৪ পরগণার সুন্দরবনের ঝড়খালির এক যুবক। প্রশান্ত সরকার নামে এই যুবকের এহেন উপহারে প্রথমে আগত অতিথিরা সকলে নাক সিটকালেও পড়ে তার উদ্দেশ্য বুঝতে পেরে  যুবককে সাধুবাদ জানিয়েছেন প্রত্যেকেই।

ইদানীং বিয়ে বা বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে রক্তদান, কিম্বা অতিথি অভ্যাগতদের হাতে চারাগাছ তুলে দিয়ে অনেকেই সমাজকে বার্তা দিতে চেয়েছেন। এবার গৃহকর্তা নয়, খোদ আমনন্ত্রিত অতিথিই সমাজকে বার্তা দিতে এই ধরনের এক সামাজিক উদ্যোগ নিলেন। শুক্রবার অন্নপ্রাশনের নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে এসে প্রশান্ত সরকার নামে এক যুবক উপহার স্বরূপ অনুষ্ঠানের কেন্দ্রবিন্দু ছোট্ট হিয়ার হাতে তুলে দিলেন একটি ফলের চারাগাছ। প্রত্যন্ত সুন্দরবনের ঝড়খালি গ্রাম পঞ্চায়েতের পার্বতীপুরের এই অনুষ্ঠান বাড়িতে এ ধরনের উপহার দেখে অতিথি অভ্যাগতরা প্রথমে সকলেই চমকে যান। পরেশ মণ্ডল ও মল্লিকা মণ্ডলের মাস ছয়েকের মেয়ে হিয়ার অন্নপ্রাশনে অন্যান্য অতিথিরা যেখানে সোনা বা রূপার গহনা, দামী খেলনা বা দামী পোশাক নিয়ে উপস্থিত হয়েছেন সেখানে এই যুবক কেন গাছের চারা নিয়ে উপস্থিত হলেন তা নিয়ে আগত অতিথিদের মধ্যে কানাঘুষো ও শুরু হয়ে যায়। কিন্তু তাতে কর্ণপাত না করে প্রশান্ত হিয়ার বাবা ও মায়ের হাতে জামরুল গাছটি তুলে দিয়ে বলেন, “সারা বিশ্বজুড়েই ধ্বংস হচ্ছে সবুজ। দিনের পর দিন আমাদের সুন্দরবন ও ধ্বংস হচ্ছে। সবুজ রক্ষা না করলে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম বাঁচবে না। নিঃশ্বাস প্রশ্বাস  নিতে কষ্ট হবে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে। তাই একে প্রকৃতি ও পরিবেশকে রক্ষা করার জন্য অবিলম্বে প্রচুর পরিমাণে গাছ লাগানো প্রয়োজন। একমাত্র গাছই পারে আমাদের প্রকৃতি ও পরিবেশকে রক্ষা করতে। তাই ছোট্ট হিয়ার জন্য এর থেকে ভালো উপহার আমি কিছু খুঁজে পাইনি”। অতিথিরা প্রথমে অনেকেই নাক সিটকালেও পরে সকলেই প্রশান্তের এই উদ্যোগকে কুর্ণিশ জানিয়েছেন। নতুন এই উপহার পেয়ে খুশি হয়েছেন হিয়ার বাবা, মাও। শুধুমাত্র হিয়াকে নয়, এদিন এই অন্নপ্রাশনে আগত আরও অন্তত কুড়িটি শিশুর হাতে এই ধরনের চারাগাছ তুলে দেন এই যুবক। কেন ফলের গাছ উপহার হিসেবে তুলে দিলেন তিনি? এই প্রশ্নের উত্তরে প্রশান্ত বলেন, “ সাধারণত ফলের গাছ অনেকেই ফল পাওয়ার আশায় অনেক বেশী যত্ন করে লাগান ও তার পরিচর্যা করেন। সেই কারণেই ফলের গাছকেই বেছেছি”। আগামী দিনে সমস্ত আমন্ত্রণ বাড়িতেই এই গাছই উপহার হিসেবে নিয়ে যাবেন বলেই জানিয়েছেন বছর তিরিশের এই যুবক।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *