আগরতলায় ফাঁসিতে আত্মঘাতী গৃহবধূ, পণের জন্য নির্যাতনের অভিযোগ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 4, 2019 | 10:49 am

 

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: পণের জন্য নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে হয়তো ফাঁসিতে আত্মঘাতী হলেন এক গৃহবধূ৷ বন্ধন-এর টাকা নিয়ে বিবাদকে কেন্দ্র এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেন মৃতার শাশুড়ি। এই ঘটনায় থানায় কোনও মামলা হয়নি। তাই পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের পর মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার সকাল নয়টা নাগাদ গোমতি জেলার উদয়পুর মহকুমার বাগমা থানাধীন বাড়ভাইয়া কলোনির বাসিন্দা গোবিন্দ শর্মার সঙ্গে বন্ধন-এর টাকা নিয়ে বচসা হয় তার স্ত্রী সঙ্গীতা শর্মার (২৬)। এর পর নিজের ঘরেই ফাঁসিতে আত্মঘাতী হয়েছেন ওই গৃহবধূ, মৃতার শাশুড়ির কাছ থেকে এ-কথা জানতে পেরেছিল বলে জানাল পুলিশ। জানা গিয়েছে, বছর পাঁচেক আগে ভালোবেসে বিয়ে করেন গোবিন্দ শর্মা ও সঙ্গীতা শর্মা। তাঁদের চার বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। সঙ্গীতার বাবা-মা নেই৷ পিসির সঙ্গে থেকেই তিনি বড়ো হয়েছেন। অভিযোগ, বিয়ের এক বছর পর থেকে পণের জন্য নির্যাতন শুরু করেন ওই গৃহবধূর স্বামী ও শাশুড়ি। ইতিপূর্বে, সালিশি সভায় তাদের পারিবারিক সমস্যা মেটানোর উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে। আজ বন্ধন-এর টাকা নিয়ে চরম বচসা হওয়ায় আত্মহত্যার পথ বেছে নেন সঙ্গীতা, এমনটাই মনে করা হচ্ছে৷ বাগমা থানার ওসি জানিয়েছেন, পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছিল। ময়না তদন্তের পর মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে৷ এছাড়া, মৃতার পিসিকে খবর দেওয়া হয়েছে৷ তবে, এখনও কোনও অভিযোগ থানায় জমা পড়েনি।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট