তলব এড়িয়ে একমাস অতিরিক্ত সময় দাবী রাজীবের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 8, 2019 | 9:55 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি, বিধাননগর: সারদা কাণ্ডের পর রোজভ্যালি কাণ্ডে রাজীব কুমারকে তলব করেছিল সিবিআই। রোজভ্যালি কাণ্ডে তার ভূমিকা সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করতে নোটিশ পাঠিয়েছিল সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকরা। বৃহস্পতিবার তাকে হাজিরা দিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু নিজে না এসে সিআইডি আধিকারিকদের পাঠিয়ে এক মাস সময় চেয়েছেন রাজীব কুমার।

সিবিআই সূত্রের খবর এক মাস পরে তিনি আসতে পারবেন এমনটাই চিঠিতে জানিয়েছেন রাজীব বাবু। তিনি আরো জানিয়েছেন রোজভ্যালি কাণ্ডে তার কোনো ভূমিকা ছিল না। তিনি বিধান নগর পুলিশের কমিশনার কিংবা সিটের প্রধান থাকাকালীন রোজভ্যালির তদন্তের সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। প্রসঙ্গত শিলং পর্বের পর দীর্ঘ টালবাহানার পর ৭ জুন সিবিআইয়ের তদন্তকারীদের আধিকারিকদের জেরার সম্মুখীন হয়েছিলেন রাজীব কুমার। সকাল ১০:৪৫ থেকে বেলা ৩:২০ সিবিআইয়ের তদন্তকারীরা ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রাক্তন কমিশনার রাজীব কুমারকে। দফায় দফায় প্রায় চার ঘণ্টা রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার ও সিটের প্রধান হিসেবে তার ভূমিকা নিয়ে বহু প্রশ্নের মুখোমুখি হন রাজীব।

সরদার পর রোজভ্যালি। নিজেকে গুছিয়ে নিতেই সম্ভবত তলব এড়ানোর জন্য সময় নিচ্ছেন রাজীব মনে করছে সিবিআই। এর আগে সারদা কান্ডে কয়েকবার নোটিশ দিয়েও তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কসরত করেছে সিবিআই। চলতি বছরের ১৭ মে সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা খান রাজিব কুমার। তার রক্ষাকবচ তুলে নেওয়া হয়। অভিবাসন দপ্তর ২৩ শে মে তার বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিশ জারি করার হয় ফলে তাঁর দেশ ছেড়ে অন্যত্র চলে যাবার সমস্ত পথ আটকে দেওয়া হয়। ২৭ মে একটি খাম বন্ধ চিঠি নিজের দুত মারফত সিবিআই দপ্তরে পাঠান রাজীব বাবু। ৩১ মে প্রতিনিধি মারফত নিজের পাসপোর্ট সিবিআই দপ্তরে জমা দেন রাজীব কুমার। ২০১৭ সাল থেকেই রাজীব কুমার কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চেষ্টা চালায় সিবিআই। কিন্তু প্রত্যেকবার তদন্তের জন্য পাঠানো প্রথম নোটিশে একবারের জন্য আসেননি রাজীব কুমার সিবিআই সুত্রের দাবি নিজের তিনি টালবাহানা করে সময় নষ্ট করাচ্ছেন। সময় নষ্ট হওয়ার ফলে ফলে তদন্ত প্রভাবিত হচ্ছে। তবে সরদার পর রোজভ্যালিতে নাম জোড়ানোয় ফের অস্বস্তিতে রাজীব কুমার।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট