বিমানবন্দরে আটকের প্রতিবাদ জানিয়ে রাষ্ট্রপতিকে চিঠি ইয়েচুরির

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 10, 2019 | 8:48 pm

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: ভেঙে দেওয়া জম্মু-কাশ্মীর বিধানসভার বিধায়ক ইউসুফ তারিগামী সহ দলীয় কর্মীদের সঙ্গে দেখা করার জন্য শুক্রবার শ্রীনগর পৌঁছেও বিমানবন্দর থেকেই ফিরতে হয় সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিকে। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে শনিবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি লিখলেন ইয়েচুরি।
এদিন রাষ্ট্রপতিকে লেখা চিঠিতে সীতারাম ইয়েচুরি জানিয়েছেন, ‘আমি গতকালের অভিজ্ঞতা জানিয়ে আপনাকে এই চিঠি লিখছি। কারণ, জম্মু ও কাশ্মীর এখন আপনার দপ্তরের অধীনে কেন্দ্রীয় শাসনে আছে। গতকাল আমি বিমান থেকে নামার পরেই আমাকে পুলিশ দিয়ে ঘিরে ফেলা হয় এবং একটি ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। যেখানে এক পুলিশ আধিকারিক জানান, আমাকে বিমানবন্দর থেকে বেরোতে দেওয়া হবে না এবং আমি যেন যত দ্রুত সম্ভব দিল্লি ফিরে যাই। …এরপর চার ঘণ্টা আমাকে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়। সিপিআই-এর কমরেড ডি রাজাও আমার সঙ্গে ছিলেন। আমি যখন আমাকে আটকে রাখার নির্দেশ দেখতে চাই- এক জেলা শাসক আমাদের জানান, আমরা শ্রীনগর গেলে আইন শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে এবং সেই কারণে বিমানবন্দরেই আমাদের আটকে রাখা হয়েছে। এই ঘটনা আমাকে বিস্মিত করেছে। আমি আগেই জম্মু ও কাশ্মীরের মাননীয় রাজ্যপালকে জানিয়েছিলাম যে, আমি দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং চারবারের বিধায়ক ইউসুফ তারিগামীর সঙ্গে দেখা করতে চাই। তিনি অসুস্থ এবং আমি তাঁর জন্য কিছু ওষুধ নিয়ে যাবো। একটি জাতীয় দল, সিপিএম-এর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমার দলীয় কর্মী, দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গে দেখা করার অধিকার আছে, বিশেষত যখন তাঁরা অসুস্থ। কিন্তু আমাকে আমার প্রাথমিক মৌলিক গণতান্ত্রিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।’
সেইসাথে তিনি চিঠিতে জানান, ‘আপনার কাছে আবেদন, ভারতীয় সংবিধানের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে সমস্ত ভারতীয় নাগরিক দেশের সংবিধান অনুসারে যাতে তাঁদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয় তা নিশ্চিত করুন। আপনার দপ্তরের অধীনে থাকা কেন্দ্রীয় শাসনে আমাকে আমার প্রাথমিক মৌলিক গণতান্ত্রিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। আমার গণতান্ত্রিক অধিকার হরণের বিরুদ্ধে আমি তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট