কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের অ্যাডভাইসরি কমিটি থেকে বেরিয়ে এলেন প্রসেনজিৎ ও অপর্ণা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ২৫তম কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসব অনুষ্ঠিত হবে ৮ থেকে ১৫ নভেম্বর। কিন্তু তার আগেই কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের অ্যাডভাইসরি কমিটি থেকে বেরিয়ে এলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও অপর্ণা সেন। তবে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, উপদেষ্টা পরিষদ থেকে সড়ে এলেও প্রয়োজনে সমস্ত রকম সাহায্য করবেন তিনি। জানা গিয়েছে, পরিচালক রাজ চক্রবর্তীকে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যান ঘোষনা করার দু’দিনের মধ্যেই অ্যাডভাইসরি কমিটি থেকে সরে দাঁড়ালেন তাঁরা। বেরিয়ে এলেন ২৫তম কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের উপদেষ্টা পরিষদ থেকে।

উল্লেখ্য, আগেই প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন, “অন্যান্য অনেক দিকে ব্যস্ত থাকার কারণেই কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসব সংক্রান্ত মিটিংয়ে উপস্থিত থাকতে পারিনি। আর কোনও দায়িত্ব সম্পূর্ণ পালন করতে না পারলে সেখানে থাকার কোনও অর্থ নেই। সেকারণে নিজেই দায়িত্ব থেকে অব্যহতি চেয়েছিলাম।” এদিন তিনি আরও বলেন, ”আমার বিভিন্ন কাজ রয়েছে। সেকারণেই রবিবার কেআইএফএফ কমিটিকে চিঠি লিখে উপদেষ্টা পরিষদ থেকে বেরিয়ে আসার কথা জানিয়েছিলাম।”

এদিকে অ্যাপেক্স অ্যাডভাইসরি কমিটিতে নিজের নাম রাখা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন অপর্ণা সেন। অপর্ণা সেন বলেন, “তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রক (কেআইএফএফের আয়োজক) থেকে আমার নাম কমিটিতে উল্লেখ করার আগে একবারও আমার সঙ্গে আলোচনা করা হয়নি।” পাশাপাশি তাঁর দাবি, তাঁকে চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যান করা উচিত। সিনেমা জগতে তাঁর অভিজ্ঞতার কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রয়োজন ছিল বলে তিনি মনে করেন। নইলে তিনি অ্যাডভাইসরি কমিটিতে থাকতে রাজি আছেন। তবে সেক্ষেত্রে যদি তাঁর থেকে অভিজ্ঞ কেউ চেয়ারম্যান হন তবেই।

প্রসঙ্গত, এই অ্যাডভাইসরি কমিটিতে রয়েছেন পরিচালক গৌতম ঘোষ, সন্দীপ রায়, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, অরিন্দম শীল এবং সৃজিত মুখোপাধ্যায় সহ অভিনেতা মাধবী মুখোপাধ্যায়, সাবিত্রী চক্রবর্তী এবং রঞ্জিত মল্লিক। অপর্ণা অবশ্য জানান, কেআইএফএফ-এর মিটিংয়ে আসার সময় নেই তাঁর। তিনি বলেন, “আমি নতুন ছবির কাজ শুরু করেছি। তাছাড়াও অস্কার নমিনেশনের জ্যুরি মিটিংয়েও থাকতে হবে আমাকে।”

এদিকে রাজ চক্রবর্তীর কথায়, “আমি রীনাদি(অপর্ণা সেন) এবং বুম্বাদার (প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়) সঙ্গে আলাদা করে কথা বলব। তাদের পরামর্শ আমার প্রয়োজন। সরকার আমাকে এই পদ দিয়েছেন এবং উৎসবকে সাফল্যের শিখরে নিয়ে যেতে আমি সমস্ত চেষ্টা করব।” তবে এই প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী তথা চলচ্চিত্র উৎসবের কো চেয়ারম্যান ইন্দ্রনীল সেন এবং অ্যাডভাইসরি কমিটির প্রধান তথা যুব কল্যাণ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

(Visited 10 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here