ঝাড়গ্রামে বিজেপি নেতাকে গুলির ঘটনায় গ্রেফতার এক

0
15

ঝাড়গ্রামে বিজেপি নেতাকে গুলির ঘটনায় গ্রেফতার এক, ৫ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত 

ঝাড়গ্রাম: বিজেপির ঝাড়গ্রাম জেলার সহ সভাপতি খগপতি মাহাতোকে গুলি চালানোর ঘটনায় যুক্ত এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিশ। শনিবার রাতে পুরুলিয়া জেলার হুটমুড়া গ্রামে পুরুলিয়া থানার পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত শান্তনু মাহাতকে গ্রেফতার করে জামবনী থানায় নিয়ে আসে।

রবিবার তাঁকে ঝাড়গ্রাম আদালতে তোলা হলে বিচারক পাঁচ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন। গত ২৯ জুন রাতে জামবনী থানার বাঘুয়া গ্রামে হরিনাম সংকীর্তন চলাকালীন বিজেপির সহ সভাপতি খগপতি মাহাতোকে তুলে নিয়ে গিয়ে একেবারে সামনে থেকে গুলি করে। এই ঘটনায় অভিযোগ উঠে তৃণমূল নেতা শান্তনু মাহাতো, কবি মাহাতো, ভানু মাহাতো সহ বেশ কয়েকজন নেতাদের নামে। এই ঘটনায় জামবনী থানায় বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতাদের নামে অভিযোগ দায়ের করে বিজেপি। যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে ঘটনার কথা অস্বীকার করে তৃণমূল। তাঁরা এলাকায় দুস্কৃতী নামেই পরিচিত ছিলেন। আগের থেকেই বিজেপিতে ঢোকার জন্য চেষ্টা করছিলেন। তাই এই ঘটনার সঙ্গে রাজনৈতিক কোনও যোগ নেই বলে দাবি তুলেছে দল।

এই ঘটনার পর পুলিশ তাদন্তে নামে। শনিবার জামবনী থানার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পায় এই ঘটনায় যুক্ত এক অভিযুক্ত শান্তনু মাহাতো পুরুলিয়াতে এক আত্মীয়ের বাড়িতে গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে। এই খবর পাওয়ার পরেই জামবনী থানার আই সি বিশ্বজিত পাত্রের নেতৃত্বে পুলিয়ার হুটমুড়া গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসে। এনিয়ে বিজেপির সহ সভাপতি খগপতি মাহাতোকে গুলি চালানোর ঘটনায় দুই অভিযুক্ত গ্রেফতার করল পুলিশ।

রবিবার তাঁকে ঝাড়গ্রাম আদালতে তোলা হলে বিচারক পাঁচ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন। তবে এই ঘটনায় মুল অভিযুক্ত কবি মাহাতো এখনও ফেরার থাকায় গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি অভিযান জারি রেখেছে জামবনী থানার পুলিশ। অন্যদিকে, শুক্রবার রাতে বেলদা গ্রামে বিজেপি কর্মীকে কুপিয়ে খুন করার চেষ্টার অভিযোগও শনিবার রাতে গৌতম মাহাতো নামে এক তৃণমুলের নেতাকে গ্রেফতার করেছে। তাঁকেও এদিন আদালতে তোলা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। এবিষয়ে ঝাড়গ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিশ্বজিত মাহাতো বলেন, পুলিশ গোপন সুত্রে খবর পেয়ে পুরুলিয়ার হুটমুড়া গ্রাম থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসেন।

(Visited 1 times, 1 visits today)