একই দিনে দুই শিক্ষক সংগঠন পৃথক দাবি নিয়ে প্রশাসনের দপ্তরে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 8, 2019 | 8:10 pm

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: শিক্ষকদের বিক্ষোভ আন্দোলন যেন শেষ হচ্ছে না। বৃহস্পতিবার দুই পৃথক পৃথক সংগঠন পৃথক দাবি নিয়ে বিক্ষোভ দেখায় পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা শাসক দফতর ও জেলার শিক্ষা ভবনে। যার মধ্যে একটি ছিল সাঁওতালি পার্শ্ব শিক্ষক সংগঠন খেরওয়াল মাচেত মাড়ওয়া, অন্যটি প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠন।

সাঁওতালি পার্শ্ব শিক্ষক সংগঠনের পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম জেলার কয়েক’শ পার্শ্ব শিক্ষক শিক্ষিকা বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাশাসকের দপ্তর এর সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে কয়েক দফা দাবিতে। জেলাশাসকের দপ্তরে প্রবেশপথে কালেক্টরেট মোড়ে রাস্তা অবরোধ করে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে তারা। তাদের দাবি, সমস্ত সাঁওতালি পার্শ্ব শিক্ষক শিক্ষিকাদের ৬০ বছরের চুক্তিপত্র অবিলম্বে দিতে হবে, যা এই রাজ্যের অন্যান্য জেলায় পেয় গিয়েছে সাঁওতাল শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

সমস্ত পার্শ্ব শিক্ষকদের পূর্ণ শিক্ষকের মর্যাদা দিতে হবে এবং সমকাজে সমাহারে বেতন প্রদান করতে হবে। এই দাবিতে বেশ কয়েক ঘন্টা ধরে অবস্থান অবরোধ চলে তাদের।

অপরদিকে, ইউনাইটেড প্রাইমারি টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন এর পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা কমিটির পক্ষ থেকেও একটি বিক্ষোভ কর্মসূচি নেওয়া হয় জেলার শিক্ষা ভবনে। মেদিনীপুর শহরে মিছিল করে এসে তারা জড়ো হয় শিক্ষাভবনের সামনে। তাদের দাবি, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বেতন বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করার পর সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট নির্দেশিকা জারি না করে বিশেষ একটি ফর্মে শিক্ষক শিক্ষিকাদের স্বাক্ষর করতে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। যে ফর্ম ইতিমধ্যেই সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের কাছে পৌঁছে গিয়েছে। তাই স্বাক্ষর করার আগে সুনির্দিষ্ট ও সুস্পষ্ট নির্দেশিকায় নতুন বেতন বিন্যাস জারি করার দাবি জানায় তারা।

দুই শিক্ষক সাংগঠনই জেলা প্রশাসনের কর্তাদের কাছে লিখিতভাবে তাদের দাবি পত্র জমা দিয়েছেন এদিন বলে জানা গিয়েছে।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট