‘কাশ্মীরে কোনও বাঙালি মারা যায়নি’: দিলীপ ঘোষ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীরের স্বাভাবিক পরিস্থিতি ক্রমশই উত্তপ্ত হচ্ছে৷ বারবার উপত্যকায় জঙ্গি অনুপ্রবেশ করিয়ে জঙ্গিহানা ঘটানোরও চেষ্টা করছে পাক সরকার৷ এরই মধ্যে মঙ্গলবার রাতে কাশ্মীরের কুলগাম এলাকায় ৬ জন বাঙালি শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে৷ জানা গিয়েছে জঙ্গিদের ছোঁড়া গুলিতে নিহত হয়েছেন মুর্শিদাবাদের শ্রমিকরা৷ সাগরদিঘির ৫ শ্রমিকের মৃত্যুতে শোকে কাতর বাংলা তথা গোটা দেশ। বৃহস্পতিবার সকালেই কুলগাম থেকে কফিনবন্দি হয়ে ফিরেছে পাঁচ শ্রমিকের নিথর দেহ। কাশ্মীরে এই হত্যালীলায় যখন ক্ষোভে ফুসছে দেশ।

রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বুধবার খড়গপুরে দাঁড়িয়ে ঘটনার নিন্দা জানাতে গিয়ে বলেন, কাশ্মীরে কোনও বাঙালির মৃত্যু হয়নি। আর তাতেই নিন্দার ঝড় ওঠে রাজনৈতিক মহলে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন নেটিজেনরা। বুধবার এক সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘কাশ্মীরে কোনও বাঙালি মারা যায়নি। যাঁরা মারা গিয়েছেন তাঁরা শ্রমিক। ওখানে আরও অনেকে মারা গিয়েছে। পাকিস্তানের মদতে সেখানে উগ্রপন্থা চলছে। আমাদের সেনা ও সরকার কাজ করছে। আশা করি দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।

[আরও পড়ুন: বাংলার শ্রমিকদের বারবার ভিন রাজ্যে মরতে হচ্ছে! ক্ষোভ শ্রমিক সংগঠনগুলির]

তিনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের মুসলমান কাশ্মীরে মারা গেলে সে বাঙালি, কিন্তু রাজস্থান বা গুজরাটে মারা গেলে সে মুসলমান। কেরালায় মারা গেলে সে বাঙালিও না মুসলমানও নয়। বাংলার মিডিয়া এবং তথাকথিত সেকুলার রাজনৈতিক দলগুলি কার স্বার্থে এই ধরণের বিভ্রান্তিমূলক প্রচার চালাচ্ছে?’

অন্যদিকে, দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করে তৃণমূল ও কংগ্রেস। সোশ্যাল মিডিয়াতেও সমালোচনা হয় প্রচুর। বিতর্কে জল ঢালতে দিলীপ ঘোষ পালটা বলেন, ‘মুসলমান ছেলেদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে মজুরের কাজ করতে পশ্চিমবঙ্গের বাইরে কেন যেতে হচ্ছে? এর জন্য মুখ্যমন্ত্রী দায়ী।’ তাঁর মন্তব্যকে বিকৃতভাবে পেশ করার জন্য সংবাদমাধ্যমকে তুলোধোনা করেন দিলীপ ঘোষ। যদিও তাঁর মন্তব্যের জেরে বিতর্ক থামছে না।

(shreyashree)

 

 

(Visited 28 times, 1 visits today)

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here