কাশ্মীরের পর ঝাড়খণ্ডে ফের মুর্শিদাবাদের শ্রমিককে কুপিয়ে খুন

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলবার কাশ্মীরে মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘির ৫ শ্রমিক নির্মম ভাবে খুন করা হয়। এই নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে সরকার। তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন রাজ্যপালও। শ্রমিকদের হত্যার ঘটনাকে পূর্বপরিকল্পিত বলে উল্লেখ করে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই ঘটনার রেশ প্রবলভাবে যখন রয়েছে, তার মধ্যেই ফের ঝাড়খণ্ডে খুন হলেন মুর্শিদাবাদের আরও এক শ্রমিক। মৃত ওই শ্রমিকের নাম এসরায়েল শেখ। তার বাড়ি মুর্শিদাবাদে রঘুনাথগঞ্জের বিলপাড়ায়। ঝাড়খণ্ডে তিনি রাজমিস্ত্রির কাজ করতে গিয়েছিলেন। তাকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। ইতিমধ্যেই ওই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে ঝাড়খণ্ড পুলিশ। তবে কী কারণে ওই শ্রমিককে খুন করা হল, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

আরও পড়ুনঃ ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনের সময়সূচী ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন

নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, সোমবারও এসরায়েল শেখের সঙ্গে বাড়ির লোকজনের কথা হয়। কিন্তু তারপর থেকে আর কোনও যোগাযোগ ছিল না। অবশেষে ঝাড়খণ্ড পুলিশের সূত্রে খবর মেলে, পিটিয়ে মারা হয়েছে এসরায়েলকে।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় লাখ লাখ চাকরি হলে ভিন রাজ্যে যেতে হচ্ছে কেন? প্রশ্ন মুকুল রায়ের

একের পর এক বাঙালি শ্রমিককে কেন ভিনরাজ্যে নিশানা করা হচ্ছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। কাশ্মীরের ঘটনায় বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী সরাসরি অভিযোগ করেন, ‘এটা পূর্বপরকিল্পত খুন। ওরা কাশ্মীর থেকে চলে আসত। অথচ তার আগেই তাঁদের নৃশংসভাবে খুন করা হল। কাশ্মীরে এখন কোনও রাজনৈতিক দল নেই। প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণ সম্পূূর্ণ কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে। কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রয়েছে। সুরক্ষা ব্যবস্থাও নাকি জোরদার। তা সত্ত্বেও কীভাবে খুন করা হল শ্রমিকদের? আমি স্তম্ভিত ও ব্যথিত।’ সেই কাশ্মীরের ঘটনার পরপরই ঝাড়খণ্ডের ঘটনা সামনে আসার বিতর্ক আরও বাড়ল।

MIJANUR

(Visited 22 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here