যানজট সমস্যা মেটাতে ফুটপাত অভিযানে নেমে প্রশ্নের মুখে মন্ত্রী গৌতম দেব

কৃষ্ণা দাস, শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি শহরের যানজট সমস্যা সমাধানে রাস্তায় নেমে প্রশ্নের মুখে পড়লেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। শনিবার কোর্টমোড় থেকে সেবক মোড় পর্যন্ত রাস্তার দুপাশের ফুটপাত দখল মুক্ত করতে শিলিগুড়ি থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে অভিযানে নামেন মন্ত্রী। সঙ্গে ছিলেন শিলিগুড়ি পুরসভার বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার, নান্টু পাল সহ তৃণমূল কাউন্সিলার ও নেতারা।

শিলিগুড়ির ট্রাফিক পুলিশ ও পুরসভার তিন নম্বর বরোর কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে এদিন হাসপাতালের কাছে ফুটপাত উচ্ছেদ করতে গেলেই মহিলা হকারদের ক্ষোভের মুখে পড়েন তিনি। যদিও মন্ত্রী তাদের কোনও কথাই শুনতে চান নি। তবে ভেনাস মোড় থেকে সেবক মোড় পর্যন্ত দুপাশের ফুটপাত দখলকারীদের তুরে না দিয়ে ছোট করে দোকান করতে বলেন তিনি। দোকানদারদের ফুটপাত থেকে মালপত্র সরিয়ে নিতে পুলিশের বলপ্রয়োগ লক্ষ্য করা গেলেও ফুটপাত দখল করে বসা হকারদের সেভাবে বলপ্রয়োগ করতে দেখা যায় নি। তারাও তাই তাদের দোকান সরায় নি। তাদের নিয়ে বৈঠকের নির্দেশ দেন পুরসভার বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকারকে।
এদিকে শিলিগুড়ি পুরসভাকে না জানিয়ে মন্ত্রীর এই অভিযানের তীব্র  সমালোচনা করেন শিলিগুড়ির মেয়র অশোক ভট্টাচার্য।  তিনি বলেন, ‘মূখ্যমন্ত্রীর আস্থাভাজন হতে নিজের ইচ্ছেমত এসব করছেন মন্ত্রী। কতটা কাজের ও কতটা নিজের প্রচারের তা নিয়ে সন্দেহ আছে।’
পর্যমটনন্ত্রীর  বলেন, ‘ফুটপাত দেখা আমাদের কাজ নয়। আমরা ফুটপাত বানিয়ে দিয়েছি। স্থানীয় প্রশাসন তা থেকে কর আদায় করে। তারা শীতঘুমে আছেন। তাই বাধ্য হয়েই আমাকে নামতে হল।’
মেয়র বলেন, ‘ফুটপাত বা যানজট মুক্ত করার  কাজ পুলিশের। তাছাড়া হকারদের জন্য সুপ্রিম কোর্টের একটা রায় আছে। সেটা মেনেই করতে হয়। যখন তখন যা ইচ্ছা করা যায় না।’ তার আরও অভিযোগ, ‘আমরা কোনও অভিযান চালালে তখন তিনটে পুলিশও পাওয়া যায় না। এদিকে মন্ত্রীকে নিরাপত্তা দিতে ৩০ টা পুলিশ তার সঙ্গে ঘুরছে। ‘ সম্প্রতি মহানন্দা নদীর চড় উচ্ছেদ করতে গিয়ে নদীর চড়ের মানুষদের আক্রমনের মুখে পড়েছিলেন  পুরনিগমের আধিকারিকরা। সে সময় পর্যাপ্ত পুলিশের অভাবেই তাদের আক্রমনের মুখে পড়তে হয়েছিল বলে মেয়র অভিযোগ করেছিলেন।  এদিকে ফুটপাতবাসীদের আগেই পুলিশ সতর্ক করে দিয়েছিল উঠে যাবার। কিন্তু পুলিশের হুশিয়ারিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই ফুটপাতবাসীরা বুক ফুলিয়ে যে যার জায়গায় বসেছিল। পড়ে মন্ত্রী গিয়ে হম্বিতম্বি করলে তখন তারা কিছুক্ষণের জন্য তা সরিয়ে নেয়। মন্ত্রী চলে যাবার কয়েকমিনিট পরেই আবার সকলে স্বস্থানে ফিরে আসেন।

(Visited 7 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here