কলকাতা পুরসভা নির্বাচনের জন্য এখন থেকেই জোট প্রস্তুতি শুরু করে দিল বাম-কংগ্রেস

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 7, 2019 | 9:50 am

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আগামী বছর কলকাতা পুরসভার নির্বাচন। এখন থেকেই জোট প্রস্তুতি শুরু করে দিল বাম-কংগ্রেস নেতৃত্ব। ২০১৬ সালে বাম ও কংগ্রেসের নির্বাচনী সমঝোতা হওয়াতেই ঠেকানো গিয়েছিল বিজেপির বাড়বাড়ন্ত। এবার তেমন কিছু শেষপর্যন্ত না হওয়ায় মানুষের কাছে তৃণমূল-বিরোধী শক্তি হিসেবে বিজেপি সমর্থন বাড়াতে পারল। তাই এই নির্বাচন থেকে শিক্ষা নিয়ে ২০২১ বিধানসভার অনেক আগে থেকে বামেদের সঙ্গে একযোগে আন্দোলন, সংগ্রাম করে নিজেদের বিশ্বাসযোগ্য তৃণমূল ও বিজেপি বিরোধী শক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। সম্প্রতি বাম-কংগ্রেস উভয় পক্ষের নেতারাই এই মথ পোষণ করেছেন। শুধু তাই নয়, বেশ কিছু ক্ষেত্রে উভয় পক্ষের নেতাদের একসঙ্গে পথে হাঁটতেও দেখা গিয়েছে। সেই সূত্র ধরেই এবার কলকাতা পুরসভা নির্বাচনে জোট বেঁধে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিল তারা।

আগামী বছর কলকাতা পুরসভার নির্বাচন। লোকসভার ফলাফলের ভিত্তিতে বেশিরভাগ ওয়ার্ডেই তৃণমূলকে পিছনে ফেলে এগিয়ে আছে বিজেপি। সেখানে বাম-কংগ্রেসের চিহ্নই নেই। এই পরিস্থিতিতে অস্তিত্ব রক্ষার তাগিদে জোট বেঁধে লড়ার কথা ভাবছেন দুই পক্ষের নেতারা। সূত্রের খবর, চলতি সপ্তাহে দক্ষিণ কলকাতার এক কংগ্রেস নেতার বাড়িতে কংগ্রেসের প্রদেশ স্তরের দুই নেতা ও বামেদের রাজ্য স্তরের দুই প্রতিনিধির মধ্যে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক হয়। বৈঠকে আসন রফার বিষয়ে চূড়ান্ত কোনও আলোচনা না হলেও বামেরা ৬৫ শতাংশ ও কংগ্রেস ৩৫ শতাংশ আসনে প্রার্থী দিতে পারে বলে প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে। তবে এবারের লোকসভার মতো আর যে আসন সমঝোতা নিয়ে জটিলতা চাইছে না দু’পক্ষ তা স্পষ্ট। সূত্রের দাবি, এর ৩ আগস্ট বারাকপুরে প্রয়াত সিপিএম নেতা সুভাষ চক্রবর্তীর স্মরণসভায় উপস্থিতি বক্তা সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য মহঃ সেলিম  ও প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি এবং লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরীর মধ্যেও এ নিয়ে আলোচনা হয়।

 

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট