স্ত্রীর ওপর কুনজরের বদলা নিতেই কড়েয়ায় খুন প্রৌঢ়, গ্রেফতার খুনী

খুন হওয়া ব্যক্তি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে কড়েয়ায় প্রৌঢ় খুনের কিনারা করল পুলিশ। গ্রেফতার করা হল স্থানীয় বাসিন্দা মহম্মদ ইসমাইলকে। পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় বাসিন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদের সময়ে প্রথম থেকেই সন্দেহজনক আচরণ মনে হচ্ছিল অভিযুক্ত ইসমাইলের। ক্রমাগত জেরায় ভেঙে পড়ে নিজের দোষ স্বীকার করে নেয় সে। মৃত রফিক তার স্ত্রীর প্রতি কুনজর দিত বলেই প্রতিহিংসা বশে এ কাজ করেছে বলে জানিয়েছে সে।

মহম্মদ ইসমাইল (খুনী)

প্রসঙ্গত, ভাইফোঁটার দিন ২৯ অক্টোবর রাতে লন্ড্রির কাপড় আনতে গিয়ে কড়েয়া রোডের ওই বাড়িতে এক মহিলা দেখেন, ঘর ভেসে যাচ্ছে রক্তে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে কড়েয়া থানার পুলিশ। উদ্ধার হয় মহম্মদ আবদুল রফিকের (৬৪) ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ। ঘটনাস্থল থেকে একটি স্ক্র ড্রাইভার উদ্ধার হয়। কিন্তু ঘরে প্রায় ৭ লক্ষ টাকা এবং লক্ষাধিক টাকার সোনার গয়না থাকলেও কিছুই খোয়া না যাওয়ায় সন্দেহ বাড়ে পুলিশের।

প্রাথমিক ভাবে মৃতের দ্বিতীয় স্ত্রী জাহিদা সেলিমের ওপরে সন্দেহ হয় তদন্তকারীদের। বিবাহিত স্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও স্বামীকে ছেড়ে কড়েয়ার ব্রাইট স্ট্রিটে থাকতেন তিনি। ঘটনার দিন সন্ধ্যা ৬টা-তেও তাঁর সঙ্গে কথা হয় রফিকের। সন্ধ্যা সওয়া ৭ টা নাগাদ রফিকের দেহ উদ্ধার হয়। কিন্তু পরে তথ্যপ্রমাণ না পাওয়া যাওয়ায় তদন্তের মোড় ঘুরে যায় অন্য দিকে।

অভিযুক্ত ইসমাইলের কথায়, বেশ কয়েক মাস ধরেই তার স্ত্রীর প্রতি রফিকের অসংযমী এবং অশালীন আচরণ বেড়েই যাচ্ছিল। এই নিয়ে সে নিজে তার আপত্তির কথা জানিয়েছিল রফিককে। কিন্তু রফিক কোনও পাত্তা দেয়নি। এরপর একদিন ইসমাইলের স্ত্রীর সঙ্গে রফিককে অসংযত অবস্থায় দেখে ফেলে ইসমাইল। তারপরেই সে রফিককে খুনের পরিকল্পনা করে বলে জেরায় জানিয়েছে সে।

sweta

(Visited 17 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here