বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে কাশ্মীরের লোক ইদে আনন্দ করুক, চাইছেন পিরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী সহ ইমামরা

মোকতার হোসেন মণ্ডল, কলকাতা: বিশ্বের অন্য দেশের সঙ্গে কাশ্মীরের লোকেরাও ইদে আনন্দ করুক, এমনটাই চাইছেন পিরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী সহ মুসলিম নেতারা। সোমবার অনুষ্ঠিত হবে ইদ-উল-আজহা বা কুরবানী ইদ। উৎসবের আগে যাবতীয় প্রস্তুতি সেরেছে মুসলিমরা। কেনা হয়েছে পশু। কিন্তু মুসলিম নেতারা বলছেন, ইদে কাশ্মীরের মানুষ কেমন প্রস্তুতি নিয়েছে জানা যাচ্ছে না। ফুরফুরা দরবার শরীফের জনপ্রিয় পিরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী বলেন, ‘ইদ মুসলিমদের পবিত্র উৎসব। এই সময় ধনী গরিব সকলেই আনন্দ করে। কিন্তু কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের ঈদ প্রস্তুতি কেমন আমরা জানতে পারছি না। আমি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করবো, কাশ্মীরের মানুষ যাতে ইদের আনন্দ করতে পারে সেই ব্যবস্থা করতে হবে।’

কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, ইদে অন্য জায়গার কাশ্মিরীরা ঘরে ফিরতে চাইলে সব রকমের সহযোগিতা করবে সরকার। সকলকে ঈদের আনন্দ দেওয়া তাঁর দায়িত্ব। পিরজাদা ত্বহা সিদ্দিকী বলছেন, কাশ্মীরের মানুষের উপর যেন অত্যাচার না হয় সেটা দেখতে হবে। সকলকে ঈদের আনন্দ করার যাবতীয় আয়োজন করতে হবে।  কলকাতার ঐতিহাসিক নাখোদা মসজিদের ইমাম মাওলানা শফিক কাসেমী বলেন, ‘ধর্মীয় স্বাধীনতা মৌলিক অধিকার। কাশ্মীরের মানুষ যেন সেই অধিকার পূর্ণমাত্রায় পায় সেটা দেখতে হবে। ইদ সহ যাবতীয় ধর্মীয় কাজ করার স্বাধীনতা দিতে হবে। আমি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করবো, ইদের দিন যেন উৎসবের মেজাজ সেখানে থাকে সেই ব্যাপারটি দেখতে হবে।’

(Visited 5 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here