ঝাড়ফুঁকের নামে গৃহবধূকে ধর্ষণ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | July 13, 2019 | 7:46 pm

ভাঙড়ে ঝাড়ফুঁকের নামে গৃহবধূকে ধর্ষণ করার অভিযোগে গ্রেফতার গুণীন

ভাঙড় : ঝাড়ফুঁকের নাম করে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল এক গুণীন এর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত গুনীন হামিদ মোল্লাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার কাটাডাঙ্গা গ্রামে।

পুলিশ সূত্রের জানা গিয়েছে , তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ, জোর করে আটকে রাখা এবং খুনের হুমকি সহ একাধিক অভিযোগ দায়ের হয়েছে কাশীপুর থানায়।

উত্তর ২৪ পরগণার গাইঘাটার বাসিন্দা এক গৃহবধূর দীর্ঘদিন ধরেই স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্য চলছিল। এছাড়া তাঁর একমাত্র সন্তান প্রায়ই অসুখে ভুগত। এই সমস্ত সমস্যার সমাধান একমাত্র বাপেরবাড়ি এলাকার গুণীন হামিদ মোল্লাই করতে পারেন বলে ওই গৃহবধূর বিশ্বাস ছিল। তাই স্বামীকে কিছু না জানিয়েই তিনি শুক্রবার সকালে কাশীপুর থানা এলাকায় বাপেরবাড়ি আসেন। তারপর শুক্রবার দুপুরে মাকে সঙ্গে নিয়ে তিনি কাটাডাঙ্গা গ্রামে হামিদ মোল্লার বাড়িতে যান। হামিদ মোল্লা তাঁর মাকে বাড়ির বাইরে বসিয়ে ওই গৃহবধূকে একাকী ঘরের ভিতর নিয়ে যান। তারপর ঝাড়ফুঁকের নাম করে ঘরের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ করে দিয়ে হামিদ তাঁকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। এরপর ঘটনাটি চেপে যাওয়ার জন্য হুমকিও দেয় গুণীন হামিদ। নির্যাতিতা গৃহবধূ জানান, বাইরের কেউ ঘটনাটি জানতে পারলে তাঁর স্বামীর সংসার হবে না এমনকি বাচ্চার ক্ষতি করে দেওয়ার হুমকি দেন এর পাশাপাশি তাঁকে খুন করা হবে বলে হুমকি দিয়েছিল ওই গুনীন।

অভিযোগ, এই অপকর্ম করার পরেও নির্যাতিতা গৃহবধূর কাছ থেকে প্রায় হাজার খানেক টাকা দাবি করেন অভিযুক্ত হামিদ।যদিও টাকা নেই বলে সেখান থেকে মা এবং বাচ্চা কে নিয়ে বেরিয়ে আসেন গৃহবধূ। অটোয় বাড়ি ফেরার পথে এক মহিলার সঙ্গে সমস্ত ঘটনা খুলে বললে ওই মহিলা কাশীপুর থানায় গিয়ে অভিযুক্ত এর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের এর পরামর্শ দেন। যদিও তিনি প্রথমে মুখ বুজে মায়ের সঙ্গে বাপেরবাড়ি ফিরে এলেও সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ গুনীন এর দেখানো ভয় কে উপেক্ষা করে একাকী কাশীপুর থানায় এসে হামিদ মোল্লার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন। এরপর তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে কাটাডাঙ্গা গ্রামে হামিদের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে কাশীপুর থানার পুলিশ।শনিবার বারুইপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয় অভিযুক্ত গুনীন কে। তাঁকে জিঞ্জাসাবাদ এর জন্য সাত দিনের পুলিশি হেফাজতের আবেদন করছে পুলিস। অভিযোগ কারী নির্যাতিতা গৃহবধূর মেডিক্যাল টেস্ট করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *