সুন্দরবন ডেঙ্গু প্রতিরোধে গাপ্পি মাছ

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর২৪পরগনা: রাজ্যে বর্ষা শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ডেঙ্গু আক্রান্ত সংখ্যা বেড়েছে। ইতিমধ্যে বেশকিছু জায়েগাতে মৃত্যুর ঘটনা সামনে এসেছে। তারই প্রতিরোধে হিঙ্গলগঞ্জ ব্লক এর নটি গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রায় ৬৪,০০০ গাপ্পি মাছ দেওয়া হলো মৎস্য দপ্তর থেকে ।বিশেষ করে সুন্দরবন লাগোয়া হিঙ্গলগঞ্জ ব্লক এর নটি গ্রাম পঞ্চায়েতের ৪৪ টা মৌজা ১২৪ টা গ্রাম।

নালা নর্দমা নোংরা জল যুক্ত জমে থাকা। এমনকি পরিত্যক্ত কুয়ো থেকে পুকুর সেখানে মশার লার্ভা নষ্ট করার জন্য। এই গাপ্পি মাছ দেয়া হল। ৪৪ টা মৌজায় ১২৪ টা গ্রামের রাজ্য মৎস্য দফতর থেকে ।প্রায় ৬৪,০০০ এই মাছ দেয়া হলো যার বাজারমূল্য প্রায় লক্ষ টাকা। জলা জায়গা প্রতিটি গ্রামের কোনায় কোনায় এই মাছ ছেড়ে দেওয়া যায় তাই পঞ্চায়েত থেকে গ্রামবাসীদের হাতে তুলে দেওয়া হবে। যাতে আগাম সতর্কবাণী,, ডেঙ্গু জ্বরের প্রভাব না পড়ে এবং ডেঙ্গু জ্বরে কারোর মৃত্যু না ঘটে। তার জন্য এই পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য মৎস্য দপ্তর। ইতিমধ্যেই বরষার জল পড়তেই চারিদিকে ডেঙ্গুর প্রভাব বাড়তে শুরু করেছে। যাতে আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যু হার কমানো যায় তার জন্য সুন্দরবনের হিঙ্গলগঞ্জ ব্লকের এই কর্মসূচি নেয়া হয়েছে ।হিঙ্গলগঞ্জ এর মৎস্য আধিকারিক সৈকত কুমার দাস ও পুর্তের কর্মদক্ষ শহীদুল্লাহ গাজী জানিয়েছেন। আমরা নটি গ্রাম পঞ্চায়েতের হাতে গাপ্পি মাছ তুলে দিয়েছি ধাপে ধাপে এগুলো আরো বেশি করে দেয়া হবে ।সম্পূর্ণ বিনামূল্যে,যাতে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করার আগাম সতর্কবাণী মানুষের কাছে পৌঁছে যায় ।এবং মশার লার্ভা মারার জন্য সব রকম চেষ্টা করা হচ্ছে। শুধু গাপ্পি মাছ নয় এর সঙ্গে ব্লিচিং পাউডার, কেরোসিন তেল, মশা মারার স্প্রে এবং মেসিন, সব রকম ব্লক প্রশাসন থেকে দেয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে ।ডেঙ্গু প্রতিরোধ করার জন্য।

(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here