উন্নয়ন মূলক কাজ করছেন না গ্রাম পঞ্চায়েতে, প্রতিবাদে বিক্ষোভ বিজেপি কর্মী সমর্থকদের

উন্নয়নমূলক কাজ করছেন না গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান এই অভিযোগ তুলে ঝাড়গ্রামে সিজুয়া গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখাল বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।মঙ্গলবার এই ঘটনা ঘটেছে বিনপুর এক ব্লকের সিজুয়া গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে।অন্যদিকে প্রধান তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

জানা গিয়েছে সিজুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট আসন আছে দশটি।পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপি পয়েছে ছটি এবং তৃণমূল পেয়েছে চারটি।দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন হওয়ার কিছুদিন পরেই সিজুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপির প্রধান দেওয়ান হাঁসদা তৃণমূলে যোগ দেন।

অন্যদিকে বিজেপির অভিযোগ প্রধান দেওয়ান হাঁসদা তৃণমূলে যোগদান করার পর থেকেই এলাকায় একশো দিনের কাজে বেছে বেছে তৃণমূলের লোকেদের কাজ পারিয়ে দিচ্ছেন,বিজেপির সমর্থক যারা কাজ করেছেন তাদের টাকা দেওয়া হচ্ছে না।এছাড়াও তার বিরুদ্ধে তোলা তোলারও অভিযোগ করছে বিজেপি।জানা গিয়েছে এদিন মঙ্গলবার সিজুয়া গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে পঞ্চায়েতের সমস্ত সদস্যদের নিয়ে একটি সাধারণ বৈঠক ছিল। কিন্তু তৃণমূলের অভিযোগ বৈঠক শুরুর আগেই বিজেপির লোকজন পঞ্চায়েতের স্টাফেদের বেরিয়ে যেতে বলে পঞ্চায়েত অফিসের বাইরে তালা ঝুলিয়ে দেয়।পঞ্চায়েত অফিসের বাইরে চলে দীর্ঘক্ষন ধরে বিক্ষোভ।বিজেপির সদস্যদের দাবি যেকোন ধরনের টেন্ডার পাশ করতে হলে পঞ্চায়েতের সব সদস্যর অনুমোদন নিয়ে আলোচনা স্বাপেক্ষে করতে হবে।পুলিশের মধ্যস্থতায় আলোচনার মাধ্যমে শেষমেশ সমস্য মেটে এবং পঞ্চায়েত অফিসের তালা খুলে দেওয়া হয়।

বিজেপির লালগড় মন্ডলের সাধারণ সম্পাদক কল্যান ধীবর বলেন “বিজেপির প্রধান তৃণমূলে যোগ দান করার পর থেকে পক্ষপাতমূলক কাজ করছেন।বিজেপির কর্মী,সমর্থক,গ্রামবসীদের সরকারি পরিষেবা থেকে বঞ্চিত করছেন। একশো দিনের কাজের টাকা দিচ্ছেনা।ঠিকাদার,বালি মাফিয়াদের কাছ থেকে তোলা তুলছে। সে যাদি এভাবে চলে তো আমরা দাবি করেছি তাকে বিজেপির সিম্বল ফেরৎ দিতে হবে।এদিন পঞ্চায়েত প্রধানের বে নিয়মের বিরুদ্ধেই পঞ্চায়েত সদস্য, গ্রামবাসীরা পঞ্চায়েত অফিসে তালা ঝুলিয়ে ছিল। যে কোন ধরনের টেন্ডার সমস্ত পঞ্চায়েত সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে পাশ করতে হবে এই সিদ্ধান্ত হওয়ার পরেই সমস্যার সমাধান হয়েছে।তালা খুলে দেওয়া হয়েছে।”

অন্যদিকে সিজুয়া গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান দেওয়ান হাঁসদা বলেন “ সম্পুর্ন মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে। আমি তৃণমূলে যোগ দিয়েছি এলাকায় যাতে উন্নয়ন করতে পারি।এদিন পঞ্চায়েত অফিসে কয়েক জন বিজেপির সদস্য এবং কিছু লোকজন কাজ হয়নি বলে নানা অভিযোগ করতে শুরু করে।আমি বলেছিলাম নির্দিষ্ট কোন অভিযোগ থাকলে তারা জানাক।কিন্তু কোন কথা না বলে ওরা সবাই উপস্থিত সকলকে বেরিয়ে যেতে বলে পঞ্চায়েত অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেয়।পরে পুলিশের মধ্যস্থতায় তালা খোলা হয়েছে।”

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *