দুর্গাপুরে কিডনি দেওয়ার নামে প্রতারণা, ধৃত ১

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 12, 2019 | 10:57 am

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: মোটা টাকার বিনিময়ে কিডনি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগ। ঘটনায় দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে ডেরা বেঁধে থাকা এক দালাল ধরা পড়ে। ধৃতের নাম তথাগত সিংহ রায়। সোমবার তাকে আদালতে তোলা হবে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়েছে শহরজুড়ে।
ঘটনায় জানা গেছে, দুর্গাপুরের ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের শ্যামপুর কলোনির বাসিন্দা অসীমা মণ্ডল। দীর্ঘদিন ধরে কিডনি সংক্রান্ত রোগে ভুগছিলেন তিনি। সম্প্রতি তাঁর দুটো কিডনি নষ্ট হয়ে যাওয়ায় কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্টের পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। অসীমাদেবীর স্বামী স্থানীয় একটি বেসরকারি কারখানার সামান্য চাকরি করেন।
কিডনি সংক্রান্ত খোঁজখবর নিতে গিয়ে তার সঙ্গে আলাপ হয় উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহের বাসিন্দা তথাগত সিংহ রায় (রণি) নামে এক যুবকের। অভিযোগ ৪ লক্ষ টাকার বিনিময়ে কিডনি জোগাড় করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় রনি। স্ত্রীকে বাঁচাতে ধাপে ধাপে ২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা দিয়ে দেয় অসীমার স্বামী রঘুনাথ মন্ডল। এদিকে কিডনি ডোনারের নাম না জানানোয় সন্দেহ হয় রঘুনাথবাবুর। গত শুক্রবার ফের টাকা নিতে এলে স্থানীয় ক্লাবের সদস্য ও প্রতিবেশীদের সঙ্গে নিয়ে ওই যুবক ও স্ত্রীর পরিচয়ে থাকা এক মহিলাকে আটকে রাখেন অসীমাদেবী ও তার স্বামী। রঘুনাথবাবু জানান, “ডোনারের নাম পরিচয় জিজ্ঞাসা করায় এমএএমসির এক মহিলার নাম বলে রনি। ডোনারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন কিডনি সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি কিছুই জানানে না।” আর তারপরই দালাল চক্রের রহস্য ফাঁস হতে থাকে। ওইদিন রাতভর ওই দম্পতিকে স্থানীয় ক্লাবঘরে আটকে রাখা হয়। এরপর শনিবার সকালে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুজনকে আটক করে।
গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করে কোকওভেন থানার পুলিশ।
জানা গেছে, গত প্রায় দেড় মাস ধরে স্টেশন সংলগ্ন একটি লজে বৃদ্ধ মা বাবা ও স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়ায় ছিল অভিযুক্ত যুবক তথাগত ওরফে রনি। রবিবার পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে অসীমা মন্ডলের পরিবার। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তথাগতকে গ্রেফতার করে। পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার তাকে আদালতে নিজ হেপাজতে নেওয়া হবে। ঘটনার তদন্ত চলছে।”

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট