ভুল থেকে শিক্ষা! আইন মেনে অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা নিতে ব্যবসায়ীদের অনুরোধ দমকলের ডিজির

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 4, 2019 | 2:30 pm

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্কঃ কলকাতার নামীদামী আমরি হাসপাতাল হোক কিংবা ,ট্রেডার্স এসেম্বলি বিল্ডিং, চিতপুরে কাপড়ের গুদামে আগুন, আবার বগড়ি মার্কেটে, একে একে জতুগৃহে পরিণত হয়েছে। অনেক সময় দেখা গেছে ফুটপাত জুড়ে প্লাস্টিক আর হোর্ডিংয়ের গেরোয় দমকলকর্মীরা পাইপ নিয়ে আগুনের উৎসে পৌঁছতে হিমশিম খেয়ে যান।বেশীর ভাগ সময় দমকল কর্মীদের হিমশিম খেতে হয়ে আগুন নেভাতে। অনেক সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। সেই কথা মাথায় রেখে বণিকসভা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্স আয়োজিত এক আলোচনাসভায় দমকলের ডিজি জানান,আইন মেনে কাজ করা হলে দমকলের ছাড়পত্র পেতে কোনও সমস্যা হবে না। সেক্ষেত্রে আগুন লাগলেও জটিলতা থেকে ব্যবসায়ীরা রেহাই পাবেন। আগুন লাগার ঘটনায় অযথা ব্যবসায়ীদের হয়রানির শিকার হতে হয় ৷ সেই কারণে তিনি বলেন আগুন লাগার ঘটনায় কতজন ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে? কিন্তু কারও গাফিলতিতে অগ্নিকাণ্ড ঘটলে এবং কারও মৃত্যু হলে তো তখন কেউ ছাড় পাবে কি করে? তাছাড়া আগুন লাগলেও তা অনেক সময় ব্যবসায়ীদের মধ্যে দমকলের কাছে গোপন রাখার প্রবণতা রয়েছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন। অন্যদিকে, উত্তর ও মধ্য কলকাতার পুরনো বাড়িগুলিতে আগুন লাগার বড় কারণ হতে দেখা যায় মান্ধাতা আমলের পুরনো ইলেকট্রিক্যাল ওয়্যারিং।তিনি অগ্নিকাণ্ড রুখতে, ওই সব পুরনো ওয়্যারিং পাল্টে ফেলতে অনুরোধ করেন৷

এর পাশাপাশি তিনি এও বলেন, বড় বিল্ডিং অথবা যেখানে বহু লোকের জমায়েত হয় সেখানে দমকল দফতর ফায়ার অডিট শুরু করেছে। দমকল দফতর ছাড়াও অন্য এজেন্সিকে দিয়েও ফায়ার অডিট করানো যাবে৷এই অডিট করানোর ব্যপারে উদ্যোগী হওয়ার জন্য ডিজি ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করেন।

 

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট