দিল্লিতে দূষণের মাত্রা সম্পর্কে উদ্বিগ্ন প্রকাশ জার্মান চ্যান্সেলর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: যতদিন যাচ্ছে রাজধানীতে দূষণের মাত্রা পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। এবার এই দূষণের মাত্রা সম্পর্কে উদ্বিগ্ন প্রকাশ করলেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল, তিনি দ্রুত পরিবেশের দূষণ কমানোর প্রক্রিয়া করতে বেশ কিছু পরামর্শ দিলেন। যার মধ্যে অন্যতম হল ইলেকট্রিক বাস। তিনি প্রস্তাব দিয়েছেন, ডিজেল চালিত যানবাহনের পরিবর্তে শহরাঞ্চলে ইলেকট্রিক বাস চালানোর ব্যাপারে।

শনিবার দিল্লিতে এক বাণিজ্য বৈঠকে সংবাদমাধ্যমকে তিনি জা‌নান, ‘তামিলনাডুতেও আমরা ২০০ মিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগ করেছি সেখানকার বাস সেক্টরের সংস্কারের জন্য। গতকাল দিল্লির দূষণ যাঁরা লক্ষ করেছেন, তাঁরা এখানে ডিজেল বাসের পরিবর্তে ইলেকট্রিক বাস চা‌লানোর ব্যাপারে দাবি করতেন।” তিনি আরও জানান নতুন জার্মান-ভারত অংশীদারির অংশ হিসেবে জার্মানি ইলেকট্রিক বাসের মতো পরিবেশবান্ধব প্রকল্পের রূপায়ণে আগামী পাঁচ বছরে ১ বিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগ করবে। উল্লেখ্য, দূষণে হাঁসফাঁস অবস্থা হয়েছিল দিল্লিবাসীর। দিল্লিতে দূষণ প্রতিরোধে দিল্লি এবং তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ‘হেলথ ইমারজেন্সি’ ঘোষণা করল সুপ্রিম কোর্ট। এর মাঝেই দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল টুইট করে আগামী ৫ই নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লির সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করেন।

[আরও পড়ুন: দিল্লিতে ‘হেলথ ইমারজেন্সি’ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট

দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের তরফ থেকে আগামী ৫ই নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লি এবং তৎসংলগ্ন অঞ্চলে নির্মীয়মাণ বাড়ির কাজও বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। এর সঙ্গেই শীতের মরশুমে নিষিদ্ধ করা হয়েছে যেকোনো ধরনের বাজি পোড়ানোও। বৃহস্পতিবারই বাতাসে দূষণের পরিমাণ আপত্‍কালীন পর্যায়ে এসে ঠেকে। এরপরেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন।

দিল্লি শহরকে এক কথায় ‘গ্যাস চেম্বার’ বলে সম্বোধন করেছেন কেজরিওয়াল। স্কুলে স্কুলে বাচ্চাদের দূষণ থেকে বাঁচতে বিলি করা হচ্ছে মাস্কও। এমনিতেই দিওয়ালিতে বাজি ফাটানোয় দূষণের মাত্রা বেড়েছে কয়েকগুণ। রাজধানীর এই অবস্থার জন্য প্রতিবেশী পঞ্জাব ও হরিয়ানাকে দুষেছেন কেজরিওয়াল। হরিয়ানা, পাঞ্জাবে ধান কেটে পড়ে থাকা খড় জ্বালিয়ে দেন কৃষকরা। ফলে সেই পোড়া কালো ধোঁওয়ার মেঘ উড়ে আসে দিল্লির দিকে। এর আগে দিল্লিতে দূষণের মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ চলাকালীন অসুস্থ বোধ করেন শ্রীলঙ্কার কয়েকজন ক্রিকেটার। এই দূষণের মাঝেই দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট ম্যাচ। কিছুদিন আগেই প্র্যাকটিসে মাস্ক পড়ে ব্যাট করতে দেখা যায় বাংলাদেশি ক্রিকেটার লিটন দাসকে।

তবে, এই দূষণের মাঝেও দায় চাপানোর খেলা চলছে কেন্দ্র এবং কেজরিওয়ালের মধ্যে। কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর এই দূষণ ঘিরে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী শুধু মাত্র কেন্দ্রের উপর দোষ চাপাচ্ছে বলে তোপ দাগেন।

sweta

(Visited 11 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here