Lead NewsSlideTop Newsকলকাতা

“মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দয়া করেছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য”: মুকুল

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্কঃ কলকাতা হাইকোর্টের রায়ের পরেই একদা তৃণমূলের  অন্যতম মুকুল রায় রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে সামনে রেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে  বিঁধলেন । তিনি বলেন “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দয়া করেছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তা না হলে যে পদ্ধতিতে মমতা বিধানসভা ভাঙচুর করেছিলেন, সেই বিধানসভা ভাঙচুর করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংসদীয় গণতন্ত্রে অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকতো না। আর এখন প্রতিনিয়ত তিনি আমাকে হেনস্থা করতে চাইছেন। মূলত আইপিএস জ্ঞানবন্ত সিংকে দিয়ে বিজেপি নেতৃত্বকে জব্দ করতে তৎপর হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।”
মুকুল রায়ের দাবি, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জনাদেশে মানুষের কাছে প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন। এখন ওঁর মন্ত্রণাদাতা কে আছেন জানি না। তাঁরা হয়ত পরামর্শ দিয়েছেন যে মুকুল রায়ের মতো লোকজনকে ‘ডিস্টার্ব’ করতে হবে।  লক্ষ্য একটাই, শুধু ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্যদের গ্রেফতার ও হেনস্থা করা।” মুকুলবাবুর আরও দাবি, তাঁকে নানাভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে এবং তিনি জানেন যে আগামী দিনে আরও করা হবে।

কলকাতা হাইকোর্টের রায়ের পর প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে এদিন মুকুল রায় বিধানসভা ভাঙচুরের প্রসঙ্গ তোলেন। মুকুল রায়ের বক্তব্য, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দয়া করেছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তা না হলে যে পদ্ধতিতে মমতা বিধানসভা ভাঙচুর করেছিলেন, সেই বিধানসভা ভাঙচুর করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংসদীয় গণতন্ত্রে অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকতো না। এটা সম্ভব হয়েছে একমাত্র বুদ্ধদেববাবুর জন্যই।”“রাজ্য সরকার যেভাবে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে, তাতে আমি আইনি পদক্ষেপ যা নেওয়ার নিচ্ছি। তবে পাশাপাশি আমার রাজনৈতিক লড়াইও জারি থাকবে।”

এর পাশাপাশি তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিভাজনের রাজনীতি করার অভিযোগ তোলেন। একসময় ধর্মীয় বিভাজন করেছেন। এখন আলাদা বিভাজন করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু কোনও বিভাজনই কাজ করবে না। বাংলার সাধারণ মানুষ দেওয়ালের লিখনে পরিষ্কার। পশ্চিমবাংলায় তিনি আর ক্ষমতায় থাকছেন না।”

 

(Visited 23 times, 1 visits today)

Tags

Related Articles

Back to top button
Close
Close