প্লাস্টিক বর্জন ও গাছ লাগানোর বার্তা দিতে রওনা দিল বাংলার যুবক

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: পরিবেশের উপর আবরন পড়েছে প্লাস্টিকের। মানুষের ব্যবহৃত প্লাস্টিক থেকে সৃষ্ট এই আবরনের জন্য বিরুপ হয়েছে পরিবেশ ও প্রকৃতি। প্লাস্টিক বর্জন করে বেশি মাত্রায় গাছ লাগিয়েই রক্ষা করা যাবে প্রকৃতিকে। বাংলা থেকে অসম পর্যন্ত এই বার্তা ছড়িয়ে দিতে সাইকেলে চড়েই রওনা দিল পূর্ব বর্ধমানের মেমারি শহরের যুবক অর্ক পাল। বাবা ও মাকে প্রণাম করে শুক্রবার দুপুরে সে মেমারির বাড়ি থেকে রওনা দেয়।

শনিবার কাটোয়ায় সচেতনতা প্রচার চালিয়ে এই যুবক রওনা দেয় বহরমপুরের উদ্দেশ্যে। এদিন অর্ক জানিয়েছে, সে সাইকেলে চেপে বহরমপুর, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদা, শিলিগুড়ি ও ময়নাগুড়ি হয়ে অসম যাবে। এই সব জায়গায় প্রচার চালিয়ে ৪৫-৫০ দিন বাদ সে মেমারি ফিরবে। প্রকৃতিকে বাঁচাতে ছেলের এমন মহৎ উদ্যোগ নেওয়ায় গর্বিত অর্কর বাবা মা।

অর্ক পাল জানিয়েছে, সাইকেল চালিয়ে সুদীর্ঘ এই পথ ঘুরে ফের ফিরে আসা যথেষ্টই কষ্ট সাধ্য ঠিকই। তবে কষ্ট যাই হোক পরিবেশ ও প্রকৃতিকে বাঁচাতে সে প্লাস্টিক বর্জন ও বেশী করে গাছ লাগানোর বার্তা জনমানসে ছড়িয়ে দিতে চায়। অর্ক বলেন, প্লাস্টিকের আবরন পরিবেশের যেমন ক্ষতি করছে তেমনই বৃক্ষ নিধনের কারণেও ক্ষতি হচ্ছে পরিবেশ ও প্রকৃতির। এখন জনসংখ্যা বাড়লেও কমছে গাছের সংখ্যা। এসবের কারণে বিরুপ হচ্ছে প্রকৃতি। জনগন সচেতন হলে তবেই পরিবেশ ও প্রকৃতিকে রক্ষা করা যাবে। তাই বাধা বিপত্তি যাই আসুক পরিবেশ ও প্রকৃতিকে বাঁচানোর তাগিদে জনসচেতনতা জাগানোর এই কাজ চালিয়ে যাবেন বলে অর্ক জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি বলেন, সচেতনতার প্রচার চালাতে বেরিয়ে তাঁকে যাতে কোন সমস্যায় পড়তে না হয় তার জন্য প্রয়োজনীয় নথি তৈরি করে দিয়ে বিশেষ ভাবে সহযোগীতা করেছে মেমারি থানা ও মেমারি ১ ব্লকের বিডিও। অর্কর মা শিপ্রা পাল বলেন, জনগণ তাঁর ছেলের বার্তাকে মান্যতা দিয়ে প্লাস্টিক ব্যবহার বর্জন ও গাছ লাগানোর বিষয়ে উদ্যোগী হলে ভারতভূমি দূষণমুক্ত হবে।

sweta

(Visited 19 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here