নিহত কর্মীর দেহ কলকাতায় আনতে বাধা দিল পুলিশ, রাজ্যজুড়ে ক্ষোভ বিজেপি নেতা-কর্মীদের

আগামীকাল বসিরহাটে ১২ ঘন্টা বনধ ডাকলো রাজ্য বিজেপি

শ্যাম বিশ্বাস, উত্তর ২৪ পরগনা: উত্তর ২৪ পরগনা জেলার সন্দেশখালিতে নিহত কর্মীদের দেহ নিয়ে কলকাতায় আসতে পারল না বিজেপি নেতৃত্ব। সন্দেশখালিতে রাজনৈতিক হিংসায় নিহত তিন কর্মীর দেহ নিয়ে কলকাতার উদ্দেশে রওনা দিলেও শহরে আসতে পারলেন না বিজেপি নেতারা।

বসিরহাটের মালঞ্চর কাছে তাঁদের আটকে দেওয়া হয়। পরে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের পক্ষ থেকে রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে জানিয়ে দেওয়া হয়, কর্মীদের দেহ তাঁদের বাড়িতে ফিরিয়ে দিতে। সেখানেই অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া হবে। শেষকৃত্য পর্যন্ত সেখানে থাকতে বলা হয়েছে দিলীপবাবু সহ দলের পাঁচ সংসদ সদস্যকে। এরপরেই রাজ্য বিজেপি আগামী কাল বসিরহাটে ১২ ঘন্টা বনধ ডাকলো।পাশাপাশি তারা জানিয়েছে লালবাজার অভিযান করবে এবং রাজ্যজুড়ে কালা দিবস পালন করবে।

বিজেপি তৃণমূল হিংসার ঘটনাগুলি নিয়ে গভীর উদ্বেগপ্রকাশ করলেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। এদিন রাজভবন থেকে বিবৃতি দিয়ে এবিষয়ে রাজ্যপালের প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে। সেখানে উল্লেখ রয়েছে সন্দেশখালির ঘটনার। পাশাপাশি স্বজনহারা এবং সম্পত্তি খোয়ানো পরিবারগুলিকে সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। হিংসা বন্ধের জন্য সব পক্ষের কাছে আবেদনও জানিয়েছেন রাজ্যপাল।

সন্দেশখালির ঘটনার উত্তাপের মধ্যে আগামীকাল নয়াদিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। পূর্ব নির্ধারিত বৈঠক হলেও সন্দেশখালিতে হিংসার পরবর্তী পরিস্থিতিতে এই বৈঠক যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ হতে চলেছে। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে আলোচনা হবে বলে রাজভবন সূত্রে জানা গিয়েছে।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *