বাড়ি যাওয়ার পথে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাতে বিজেপি নেতা আক্রান্ত

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 6, 2019 | 5:26 pm

সোমা কর, দিনহাটা: বাজার থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে বিজেপির ২৪ নং মণ্ডলের সহ সভাপতিকে মারধরের অভিযোগ উঠল তৃনমূল কংগ্রেসের একদল দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে দিনহাটা ১ ব্লকের গিতালদহ এলাকায়। ওই ঘটনার পর আক্রান্ত নেতাকে উদ্ধার করে দিনহাটা মহকুয়মা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এদিকে এই ঘটনার পর এলাকা উত্তেজিত থাকায় ঘটনাস্থলে ছুটে যান দিনহাটা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশ সুত্রে জানা যায়, আক্রান্ত ওই ব্যাক্তির নাম মহেশ চন্দ্র দে। তার বাড়ি গিতালদহ এলাকায়। সে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে। স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে, এদিন রাতে গিতালদহ বাজার থেকে কিছু কেনাকাটা করে বাড়ি ফিরছিলেন বিজেপির সহ সভাপতি মহেশ চন্দ্র দে। সেই সময়ই তৃনমূল আশ্রিত কিছু দুষ্কৃতীরা তাকে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। এমনকি লোহার রড দিয়ে আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। দলের ২৪ নং মণ্ডল সহ সভাপতির তৃনমূল কর্মীদের হাতে আক্রান্ত হওয়ার খবর পেয়ে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ছুটে আসেন বিজেপির যুব মোর্চার দিনহাটা শহর মন্ডলের সভাপতি মুন্না সাউ সহ অন্যান্যরা। তাঁর শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁকে কোচবিহারে স্থানান্তরিত করা হয়।

দিনহাটা শহর মণ্ডলের যুব মোর্চার সভাপতি মুন্না সাউ , বিজেপির কোচবিহার জেলা সম্পাদক সুদেব কর্মকার বলেন, লোকসভা নির্বাচনে তৃনমূলের পায়ের তলার মাটি সরে যাওয়াতে তারা আতঙ্কে রয়েছে। দিনহাটার বিভিন্ন এলাকায় তৃনমূল কংগ্রেস সন্ত্রাস চালাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে দিনহাটা থানার আইসি সঞ্জয় দত্ত বলেন এখনো কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

যদিও তৃনমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে তৃনমূল নেতা জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ নুর আলম হোসেন। তিনি বলেন, “ওটা বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল। নিজেরা নিজেদের ভাগাভাগি নিয়ে মারামারি করে তৃনমূলের ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে প্রচারের আলোয় আসতে চাইছে। মানুষ বুঝে গেছে বিজেপি আসল রুপ।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট