মালদায় গণিখান কলেজের দূর্নীতি নিয়ে সরোব কংগ্রেস পাল্টা কটাক্ষ বিজেপি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক | August 9, 2019 | 3:30 pm
মিল্টন পাল, মালদা: মালদা জেলার রূপকার খোদ গনি খান নামাঙ্কিত গণিখাণ চৌধুরী কারিগরি বিশ্ববিদ্যিলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে পথে নামল জেলা কংগ্রেস। এদিন মালদা জেলা কংগ্রেসের সভাপতি মোস্তাক আলমের নেতৃত্বে বিক্ষোভ দেখানো হয়।  জিকে সি আই টির পরিকাঠামোগত উন্নয়নে ব্যপক দূর্নীতি,স্বজোন পোষন,আর্থিক বেনিয়ম সহ ছয় দফা দাবিতে এদিন স্মারকলিপি কলেজ কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ছাত্র পরিষদ, যুব কংগ্রেস ও জেলা কংগ্রেসের নেতৃত্বে এই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়। পাল্টা দূর্ণীতি নিয়ে কটাক্ষ করেছেন বিজেপি সাংসদ খগেন মুরমু।
          উল্লেখ্য এই কারিগরি মহাবিদ্যালয়ের সূচনা লগ্ন থেকেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে। কেন্দ্র ও রাজ্যের টানাপোরেনে এই কলেজের পঠন পাঠন বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে বারবার।কিছুদিন আগেও এই কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা এই কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা কলকাতা টালিগঞ্জ মেট্রো স্টেশনের সামনে ধর্নাতে বসেন। সঠিক সময়ে ফল প্রকাশ এবং  সার্টিফিকেটের দাবিতে। গনিখান চৌধুরীর পরিবারের পক্ষ থেকে এই কলেজ নির্মাণের জন্য ৩শো বিঘা জমি দেওয়া হয়েছিল। সেই জমিতেই গড়ে উঠছে জি কে সি আই টি কলেজ। কেন্দ্রে কংগ্রেস ক্ষমতা থেকে চলে যাওয়ার পরে শুরু হয় সমস্যা। বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকার এই কলেজের আর্থিক সাহায্য প্রায় বন্ধই করে দিয়েছে। রাজ্য সরকার ও পদ্ধতিগত ত্রুটির কারণে হস্তক্ষেপ করতে পারছেন না। এই নিয়ে ছাত্রছাত্রীরা নাজেহাল।
          জেলা কংগ্রেস সভাপতি মুস্তাক আলম বলেন, এই কলেজে ছাত্র ভর্তির সমস্যা রয়েছে। কলেজ তৈরির জন্য একমাত্র গনি খান চৌধুরীর পরিবার ৩শো বিঘা জমি দিয়েছে এখনো পর্যন্ত কেউ দেয়নি। এখানে বিটেক এমটেক ও গবেষনা চালু হওয়ার কথা ছিল। কিছুই করা হয়নি। কলেজ নিয়ে রাজনৈতিক করন করা হচ্ছে। কারণ এই প্রতিষ্ঠানটি নামাঙ্কিত হয় তাহলে গনি খান এর নাম হবে। সরকারি নিয়ম মেনে এই প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে হবে।প্রতিষ্ঠানের প্রতি ব্যপতি ঘটে তার ব্যবস্থা করতে হবে।
                উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খোগেন মুর্মু বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই এই বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করতো কংগ্রেস পরবর্তীকালে তৃণমূল কংগ্রেস। তাদের আমলে যা দুর্নীতি হওয়ার হয়েছে। আমরা ক্ষমতায় আসার পর এটাকে দুর্নীতিমুক্ত করার চেষ্টা করছি।আর তাতেই গত্রদাহ হয়ে নিজেদের দোষ আড়াল করার জন্য কংগ্রেস এসব মিথ্যা অভিযোগ আনছে। দুই সরকারের সময়ে দূর্নীতির স্বীকার এই কলেজ।

ক্লিক করুন এখানে, আর চটপট দেখে নিন ৪ মিনিটে ২৪টি টাটকা খবরের আপডেট