প্রকাশ্যে মুখ্যমন্ত্রীর মামার বাড়ির গ্রামেই চলছে মলত্যাগ

অমরনাথ দত্ত, বীরভূম: ২০১৮ সালে ঘটা করে বীরভূমের বিভিন্ন ব্লক এবং বীরভূম জেলাকে ‘নির্মল বীরভূম’ ঘোষণা করা হয়। কিন্তু তারপর কতটা বদলেছে জেলার ছবি! মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মামার বাড়ির গ্রামেই নির্মল বীরভূমের দেখা গেল উল্টো ছবি। এখনো পর্যন্ত কুসুম্বা গ্রাম পঞ্চায়েতের আখিরা গ্রামে সাধারণ মানুষ প্রকাশ্যে করছে মলত্যাগ।

প্রকাশ্যে মলত্যাগ করতে আছে ঐ সকল সাধারণ মানুষদের সাথে কথা বলে জানা গিয়েছে, তাদের অনেকের বাড়িতে এখনো পর্যন্ত হয়নি শৌচাগার, কেউ আবার সচেতন ও তার অবাধ উন্মুক্ত স্থানে করছে মলত্যাগ। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী নিজেই গ্রাম বাংলাকে নির্মল বাংলা ঘোষণা করেছেন। কোটি কোটি টাকা ব্যয় করে চালানো হয়েছে প্রচার, বাড়ি বাড়ি তৈরি করা হয়েছে শৌচাগার। কিন্তু তারপরেও থেকে গিয়েছে ফাঁকফোক

উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগ করতে আসা এক ব্যক্তি জানান, বাড়িতে ৫ জন লোক রয়েছে। বাড়ির মেয়ে ছেলেরা শৌচাগারে পায়খানা করতে চাই তার জন্য বাধ্য হয়ে বাইরে আসতে হয়েছে। অনেকে তো আবার উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগ করে কোনওকিছু বলেই চম্পট দিচ্ছেন।একজন তো নির্দ্বিধায় বলেই দিলেন, তিনি এখনো পায়খানা বাথরুম পাননি। তাই আছে হয়েছে মাঠে।

প্রসঙ্গত, এখানকার গ্রামের বহু মানুষই উন্মুক্ত স্থানে মল ত্যাগ করেন বলে জানা গিয়েছে। কারোর বাড়িতে হয়নি শৌচাগার, আবার অনেকেই শৌচাগার থাকা সত্ত্বেও সচেতনতার অভাবেই উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগ করেন। এ প্রসঙ্গে রামপুরহাট মহকুমা শাসক শ্বেতা আগারওয়াল জানান, প্রশাসনের সব স্তরের আধিকারিকদের সাথে কথা বলে বিষয়টি দেখছি।

(Visited 7 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here