ধানের পাশাপাশি পান চাষেও লাভ

ধান-পাটের চাষের পাশাপাশি পান চাষেও লাভ দেখছেন চাষিরা

আগের তুলনায় অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে পান চাষ। ধান চাষের জন্য এরাজ্যে বিশেষ স্থান পেয়েছে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তার মধ্যে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এই জেলার চাষিরা বাড়তি লাভ পাওয়ায় পান চাষকেও গুরুত্ব দিয়েছে। বর্তমানে হিলি ব্লকের পাঞ্জুলের আগ্রা এলাকার ৭০ থেকে ৮০টি পরিবার এই চাষের সঙ্গে যুক্ত। এলাকায় ১৫০টিরও বেশি পানের বরজ রয়েছে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার প্রায় ৬০ হেক্টর জমিতে পান চাষ করা হয়। এমনকি ওই অঞ্চলের চাষিরা নিজেদের জমিতে এক সময়ে ধান, পাট চাষ করলেও, এখন পান চাষের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েছেন।গঙ্গারামপুরের পাশাপাশি এখন বালুরঘাট ব্লকের রাধানগর, কুমারগঞ্জ এবং কুশমন্ডি ব্লকেও এই চাষ শুরু হয়েছে।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কৃষি অধিকারিক জানান, সরকারি পরিকল্পনা পরিকল্পনা করা হলে পান চাষিরা উৎসাহ পাবে চাষে। কৃষিদফতরের থেকে সহযোগিতাও চাওয়া হয়েছে। চাষের বিষয়টি দেখে উদ্যান পালন দফতর। চাষিদের দাবি, সংশ্লিষ্ট দফতরের আরও সক্রিয়তা এবং রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণের জন্য স্থায়ী পরিকল্পনার দরকার। দক্ষিণ দিনাজপুরের উত্তরবঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা পানের ধসা রোগ মোকাবিলায় ওষুধ দেন। তবে ব্লক প্রশাসনের থেকে অনেকসময়ই সাহায্য পাওয়া যায় না। চাষিরা জানান, মূলত কার্তিক মাসে তোলা পান পাতার চাহিদা অনেক বেশি। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে মাঝেমধ্যেই পানের ধসা রোগ শুরু হয়। যার ফলে অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে চষিদের। কালীপুজোর পর থেকে অর্থাৎ শীতের প্রবেশেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার পানের বরজগুলিতে ধসা রোগের আতঙ্ক দেখা দেয়। প্রাচীন পলিমাটি বেষ্টিত দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার পান চাষকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে পান সমিতি গঠনের পাশাপাশি পৃথক বিপণনে আরও জোর দেওয়ার দাবি জানালেন পান চাষিরা।পান চাষ হলেও পান সমিতি না থাকায় পানের সঠিক মূল্য পাচ্ছেন না চাষিরা ফলে ক্ষতি হয়ে যায় চষিদের।

(Visited 26 times, 2 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here