শ্লীলতাহানির অভিযোগ শিক্ষিকার ভাইয়ের বিরুদ্ধে

0
6

গৃহ শিক্ষিকার বাড়িতে পড়তে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার এক নাবালিকা ছাত্রী

সোনারপুর: গৃহ শিক্ষিকার বাড়িতে পড়তে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার হল এক নাবালিকা। ছাত্রীটির অভিযোগ, ওই শিক্ষিকার ভাই তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছে। সোনারপুরের বাদামতলার ঘটনা। গৃহ শিক্ষিকা বাড়িতে না থাকার সুযোগ নিয়ে তার ভাই ওই ছাত্রীকে
পড়াশোনা দেখিয়ে দেওয়ার ছলে তাঁর সঙ্গে এই খারাপ কাজ করেছে বলে তাঁর
বাবার অভিযোগ। ওই ছাত্রীকে ভয়ও দেখিয়েছে কাউকে কিছু না বলার জন্য। বলে
দিলে খারাপ হবে বলেও ভয় দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ। যদিও ছাত্রী বাড়িতে ফিরেই তাঁর  পরিবারকে সব কথা বলে দেয়। তারপরেই ওই ছাত্রীকে নিয়ে তাঁর পরিবার
সোনারপুর থানায় এসে ওই যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনায়
পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করেছে বলে জানা গিয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে পকসো ধারায় মামলা শুরু করেছে পুলিশ।

এই ঘটনায়  সোমবার রাতেই ওই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। এলাকায় অভিযুক্তের সুনাম থাকায় তাঁর হয়েও এলাকার কিছু মানুষ থানার সামনে এসে জড়ো হয়। তাঁরা
দাবি করেন, ওই যুবকের প্রতিবেশী তাঁরা। যুবক খুবই ভাল ছেলে। ছাত্রীর বাবা
জেলার এক বড় নেতার গাড়ির চালক। সেই ক্ষমতাকে ব্যবহার করে তাঁকে ফাঁসানো
হচ্ছে। যদিও পুলিশ নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। স্থনীয় মানুষ ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্তের নাম বাপ্পা রায়। তাঁর বাড়ি সোনারপুরের বাদামতলা এলাকায়। বাপ্পার দিদির কাছেই পড়তে যেত গোড়খাড়ার বাসিন্দা পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী। ওই ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ, সোমবার অন্য দিনের মতো ছাত্রী পড়তে গিয়েছিল। কিন্তু বাড়িতে গৃহ শিক্ষিকা ছিলেন না। সেই সময়ই শিক্ষিকার ভাই তাঁকে পড়া দেখিয়ে দেবে বলে ঘরে বসতে বলে। পরে তাঁর শ্লীলতাহানি চেষ্টা করে। অভিযোগ, বাথরুমে নিয়ে গিয়ে তাঁর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে বাপ্পা। রাতেই ছাত্রীর পরিবার
সোনারপুর থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করে।

(Visited 2 times, 1 visits today)