দেশকে চমকে দিচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে মুসলিম জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার !

শংকর দত্ত, কলকাতা: ব্যাপারটা একদমই হেলাফেলা করবার বিষয় নয়। গোটা দেশ জুড়ে যখন হিন্দু জনসংখ্যার হার ক্রম হ্রাসমান,সেখানে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গে মুসলিম জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার উর্ধমুখী। বিষয়টা চিন্তায় ফেলেছে হিন্দুত্ব বাদী সংগঠনের অনেক শীর্ষ স্তরের নেতাদের।

একটি হিসাব বলছে, গত দশ বছরে গোটা ভরতে যেখানে হিন্দু জনসংখ্যা কমে ০.৭ শতাংশ হচ্ছে।সেখানে পশ্চিমবঙ্গে এই হিন্দু জনসংখ্যার হার কমছে আরও বেশি করে। এ রাজ্যে হিন্দু জনসংখ্যার হার কমে ১.৯৯ শতাংশ। অর্থাৎ দেখা যাচ্ছে এখানে হিন্দুদের সংখ্যা বৃদ্ধির হার ক্রম হ্রাসমান। উল্টো দিকে আবার সারা দেশে মুসলিম জনসংখ্যার হার যেখানে ০.৮ শতাংশ সেখানে পসচিমবঙ্গে তা দ্রুত বৃদ্ধি হয়ে দাঁড়াচ্ছে ১.৭৭ শতাংশ। মানে এই বাংলায় গোটা দেশের অনুপাতে মুসলিমদের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার সবথেকে বেশি। এবং পশ্চিমবাংলার মূলত তিনটি জেলাতেই মুসলিম জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার এতোটাই উল্লেখযোগ্য যার পরিসংখ্যান দেখলে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যাবার মতোই।

জনগণনা বা আদমশুমারি ২০১১ অনুযায়ী এ রাজ্যে মোট জনসংখ্যা ৯ কোটি ১২ লক্ষ। সেখানে ধর্মের ভিত্তিতে হিন্দুরা আছে ৬ কোটি ৪ লক্ষ। যেটা পশ্চিমবঙ্গের মোট জনসংখ্যার ৭০.৫৩ শতাংশ। অন্যদিকে এ রাজ্যে মুসলিম রয়েছে প্রায় ২ কোটি ৪ লক্ষ। যা শতাংশের হিসেবে ২৭.০১। আবার হিসেব বলছে, ২০০১ এর জনগণনা অনুযায়ী শেষ দশ বছরে মুসলিম সম্প্রদায় জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার অস্বাভাবিক ভাবে।যেখানে ২০০১ এর আদমসুমারীরর সঙ্গে ২০১১ সালের আদমসুমারীর কোনও সামঞ্জস্যতা নেই।

২০১১ সালের জনগণনার হিসাবে ধর্মের ভিত্তিতে পশ্চিমবঙ্গের মালদহ,মুর্শিদাবাদ ও উত্তরদিনাজপুর জেলাতে মুসলিম  জনসংখ্যা বৃদ্ধি এতটাই যা হিন্দু জনসংখ্যাকে অনেক আগেই ছাপিয়ে গেছে। জনগণনার ভিত্তিতে মুর্শিদাবাদ জেলায় এই মুহূর্তে মুসলিম জনসংখ্যা যেখানে ৪৭ লক্ষ,সেখানে হিন্দু আছে মাত্র ২৩ লক্ষ। একই ভাবে মালদা ও উত্তরদিনাজপুর মুসলিম সম্প্রদায় যেখানে যথাক্রমে ২০ ও ১৫ লক্ষ। সেখানে হিন্দু আছে যথাক্রমে ১৯ ও ১৪ লক্ষের মতো।

(Visited 111 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here