ইসলামিক মৌলবাদি সংগঠন গুলিকে প্রশ্রয় দিচ্ছে বাংলার ক্ষমতাসীন সরকার: মোহিত

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা, ১জুলাই: প্রিয়া সাহার সমর্থনে ভারতীয় জনতা পার্টির গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে আয়োজিত প্রতিবাদ সভাকে বঞ্চাল করল মমতার পুলিশ। প্রিয়া সাহা কে দেশদ্রোহী তকমা দিয়ে দেশ ছাড়তে বাধ্য করেছে বাংলাদেশ সরকার। তার প্রতিবাদ জানাতেই বৃহস্পতিবার দুপুরে কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের সামনে প্রতিবাদ সভা সংগঠিত করার জন্য বিজেপি উদ্বাস্তু সেলের নেতা মোহিত রায়ের নেতৃত্বে এক বিশাল জমায়েত হয়েছিল।
তাদের দাবি,  ডেপুটেশন দিতে যাবেন বলে আগে থেকেই তারা পুলিশকে জানিয়েছিলেন। কিন্তু অনুষ্ঠান শুরুর আগেই কর্মীদের হঠাৎ গ্রেফতার শুরু করে পুলিশ। দফায় দফায় পুলিশের গাড়ি এসে বিক্ষোভকারীদের গ্রেফতার করে লালবাজার সেন্ট্রাল জেলে নিয়ে যায়। মোহিত রায় যখন পুলিশের কাছে অনুরোধ করেন তাদের ডেপুটেশনে যেতে দেওয়া হোক। কোন কথা না শুনে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঘটনায় বিজেপি নেতা রাজিব ঘোষ সহ প্রায় আশি জন  বিজেপি কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পরে যুগশঙ্খের প্রতিনিধিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে মোহিত বাবু বলেন,’ রাজ্যের তৃণমূল সরকার দিনের পর দিন ইসলামিক মৌলবাদকে সমর্থন জানিয়ে চলেছে একের পর এক ঘটনার মধ্যে দিয়ে। ইসলামিক সংগঠন গুলিকে প্রশ্রয় দেওয়ার প্রবণতা। সে দেশে হিন্দু সংখ্যা লঘু যে অত্যাচারিত হচ্ছে তা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চলছে। এদিকে দুদিন আগে বাংলাদেশে ভারতীয় দূতাবাসের সামনে প্রতিবাদ সভা করল সেদেশের ইসলামিক সংগঠনের ডাকে তাতে কোনো বাধা দেওয়া হয়নি। গোটা বিষয় টাই চক্রান্ত।’
প্রিয়া সাহা অপরাধ তিনি আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ হিন্দু সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর অকথ্য অত্যাচার চলছে তা তুলে ধরেন। বিজেপি নেতৃত্বের দাবি বাংলাদেশ যে দীর্ঘদিন ধরে সংখ্যালঘু  হিন্দু সম্প্রদায়  অত্যাচারিত হচ্ছে সে কথাই তুলে ধরার চেষ্টা করেছিলেন প্রিয়া সাহা।
(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here